Is 2441139 really Bela Bose’s number? Know who is the real Bela Bose? Whose number is that in real?

Is%2B2441139%2Breally%2BBela%2BBose%2527s%2Bnumber

১৯৯৮ সালের একটি গান যা যুবসমাজের বুকে ঝড় তুলেছিল। কোন গানের কথা বলছি হয়তো বুঝতে পেরেছেন! হ্যাঁ আমি বেলা বোসকে নিয়ে লেখা অঞ্জন দত্তের “চাকরিটা আমি পেয়ে গেছি বেলা শুনছো” গানটির কথাই বলছি।

একসময় এই গানটি যুবসমাজের কাছে খুব প্রিয় গানে রূপান্তরিত হয়। একটি মধ্যবিত্ত পরিবারের ছেলের তার প্রেমিকার কাছে তার চাকরির খবর পৌঁছে দেবার যে প্রবল ইচ্ছা তা আমরা সকলেই দেখতে পাই। কখনো কখনো মনে হয় এটি যেন আমাদেরই গান; আমাদেরই গল্প। আমি হলফ করে বলতে পারি আপনিও সেই গানটি বহুবার শুনেছেন এবং গানটি খুব ভালোও বাসেন তাই আপনি এই পোষ্টটি পড়তে এসেছেন।



সে যাই হোক গানটি বের হবার পর সাধারণ মানুষের মধ্যে যে কৌতুহলটা প্রথম ফুটে উঠেছিল সেটা হলো এইযে ২৪৪১১৩৯ নাম্বারটি গানটিতে ব্যবহৃত হয়েছে এটি কি সত্যি বেলা বোসের নাম্বার? যদি বেলা বোসের নাম্বার না হয় তাহলে এটা কার নাম্বার? অতি উৎসাহী কিছু ব্যাক্তি এই নাম্বারে ফোনও করেও জানতে চেষ্টা করেছেন।

এই প্রশ্নটা অঞ্জন দত্তকে করা হলে তিনি জানান, গানটি যে সময় লেখা হয়েছিল তখন ল্যান্ডফোনের নাম্বার হতো ৬ সংখ্যার। তাই অঞ্জনদত্ত তার গানে সাতটি সংখ্যা ব্যবহার করেছেন যাতে এটি কোনো ব্যাক্তির ফোন নাম্বার না হয়ে যায়। আরেকটি যে কারণ তিনি দেখিয়েছেন সেটি হলো, সুর মেলানো; সুর মেলানোর জন্য এরকম একটি নাম্বার ব্যবহার করা হয়েছে। অঞ্জন দত্ত আরো বলেন আদৌতেও বেলা বোস নামে কেউ নেই এটা নিছকই একটি গান।


তবে অতীতে ল্যান্ডফোন নাম্বার ৬ সংখ্যার হলেও বর্তমানে ল্যান্ডফোন নাম্বার ৭ সংখ্যার হয়। আর আপনি জানলে অবাক হবেন বেলা বোসের নাম্বার ২৪৪১১৩৯ এই নাম্বারটি এখন অস্তিত্ব রাখে। এখন যদি আপনি এই নাম্বারে ফোন করেন, তবে বেলা বোস কে তো পাবেন না!  তবে ফোনটি গিয়ে লাগবে “Dainik Vishwamitra” নামক একটি হিন্দি সংবাদপত্রের সম্পাদকের কাছে।
আজ ২৩ বছর পরেও হাজারে-হাজারে যুবক নিজের কৌতুহলের বশে ফোন করে বসে এই নাম্বারে।

এরকম আরো মজাদার আপডেট পেতে আজই যুক্ত হন আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপেঃ- WhatsApp