LIC-Agent-Recruitment

Rural Sector Agent হিসাবে যোগ দিন এবং পেয়ে যান প্রতি মাসে ৫০০০ হাজার টাকা স্টাইপেন্ড। এল.আই.সি-র রুরাল সেক্টর রুরাল কেরিয়ার এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ করছে।

বর্তমান সময়ে কাজের বাজারে সরকারি চাকরির সুযোগ খুবই সংকুচিত। অথচ যুবসম্প্রদায়ের বহু ছেলে-মেয়ে একটি কর্মসংস্থানের আশায় দিন গোনে। এমত অবস্থায় সরকারি চাকরির সুযোগ যতই কম হোক না কেন, তার পাশাপাশি এমন একটি আকর্ষণীয় ও রোমাঞ্চকর পেশা আছে যা হয়তো অনেকেরই অজানা। এমনই একটি পেশা নিয়ে হাজির হয়েছে এল.আই.সি। এই পেশায় আপনি পেয়ে যাবেন খ্যাতি, ঐশ্বর্য ও সাফল্য।

• এল.আই.সি এজেন্ট হওয়ার জন্য কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন~

(১) ছাত্র, গৃহবধূ, ব্যবসায়ী, কর্মপ্রার্থী, স্ব-নিযুক্ত পেশার মানুষ কিংবা যে কোন বেসরকারি ফার্মের কর্মী বা অবসরপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হতে হবে।

(২) বয়স ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে হতে হবে।

(৩) দশম শ্রেণি পাশ করে থাকতে হবে।

• এল.আই.সি এজেন্সির বিনিময় কি কি লাভ করা যায়?
(১) কাজের সময়, পদ্ধতি এবং স্থান নির্বাচনের অবাধ স্বাধীনতা,
(২) বিনামূল্যে উপযুক্ত এবং নিবিড় প্রশিক্ষণ,
(৩) ইচ্ছামতো সীমাহীন আয়ের সুযোগ,
(৪) উন্নত ও আধুনিক পরিষেবা ও সুদক্ষ আধিকারিকদের সহায়তা,
(৫) সংগৃহীত প্রতিটি পলিসির ওপর সরকারি গ্যারান্টি,
(৬) আর্থিক এবং সামাজিক ক্ষেত্রে ক্রমবর্ধমান প্রতিষ্ঠা ও মর্যাদা।

• এল.আই.সি এজেন্ট হলে কি কি সুবিধা পাওয়া যায়?
(১) প্রথম কমিশন:- জমাকৃত প্রিমিয়ামের উপর প্রথম কমিশন। শুধু তাই নয়, এক বছর পর এই কমিশনের ওপর ৪০ শতাংশ টাকা বোনাস হিসাবে পাওয়া যায়। তারপরও পলিসি চালু থাকাকালীন পরবর্তী কমিশন আকর্ষণীয় হারে পাওয়া যায়।


(২) মেডিক্যাল চিকিৎসার সুবিধা:- ক্লাব মেম্বার এজেন্ট হলে নিজের ও জীবন সঙ্গীর মেডিক্লেম ইন্স্যুরেন্সের সুবিধা পাওয়া যায়।


(৩) পেনশন/অবসরকালীন সুবিধা/পারিবারিক পেনশন:- বছর ৬০ অতিক্রান্ত হলেই ইচ্ছামত সময় গ্র্যাচুইটি ( সর্বাধিক ৩ লক্ষ টাকা) লাভ করা যাবে এবং তারসাথে বংশানুক্রমে কমিশন এবং টার্ম ইন্সুরেন্স এর সুবিধা রয়েছে। এছাড়া Swavalamban পেনশন স্কিম এবং Sambardhan পেনশন স্কিম এর মাধ্যমে এজেন্টরা পেনশন পাওয়ার সুবিধা পেয়ে যাবে।


(৪) আগাম অর্থ প্রদান:- জনসংযোগ এবং নেটওয়ার্ক আরো সুদৃঢ় করতে অগ্রিম অর্থ প্রদান করে এল.আই.সি। ল্যাপটপ, কম্পিউটার, গাড়ি, মোটরসাইকেল, স্কুটার, অফিস ফার্নিচার কেনার জন্য কিংবা টেলিফোন সংযোগের খরচ, গৃহঋণ ( সর্বাধিক ৮ লক্ষ টাকা) এবং বিভিন্ন উৎসব বিবাহের খরচ বা বাড়ি মেরামতের জন্য আগাম সুবিধা পাওয়া যায়।


(৫) পেশাগত মর্যাদা:- ব্যবসা বাড়িয়ে “ক্লাব মেম্বার এজেন্ট* হলে আরো বেশি বেশি সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যায়। নিয়মিত কমিশন ছাড়াও একজন “চেয়ারম্যান ক্লাব মেম্বার” যেসব সুবিধা পেয়ে থাকেন তার আর্থিক মূল্য প্রায় দেড় লক্ষ টাকা।


(৬) বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ:- এল.আই.সি তার ৮ টি ZTC, ১০৯ টি DTC, ৩৫ টি STC, ৫৯৯ টি ATC তে বিনামূল্যে উচ্চমানের প্রশিক্ষণ দেওয়ার দায়িত্ব গ্রহণ করে থাকে।

• শুধুমাত্র এল.আই.সি এজেন্ট বন্ধুরা ২০১৯-২০২০ সালে মোট কমিশন পেয়েছে ২৪৯৫ কোটি টাকা। সারা দেশজুড়ে এল.আই.সি-র ২০৪৮ টি শাখা অফিস এবং ১৫২৬ টি স্যাটেলাইট অফিসের সাথে প্রায় ১২ লক্ষ ৮ হাজার এজেন্ট বন্ধু এই মুহূর্তে যুক্ত রয়েছেন। সফল এজেন্ট তালিকায় আছেন শিক্ষক, ছাত্র, ট্যাক্স অ্যাডভোকেট, গৃহবধূ, শিল্পপতি, ফিল্মস্টার প্রমুখ।

• এছাড়াও পেয়ে যাবেন নিজের স্বপ্নের বাংলো, নিজের গাড়ি, নিজের অফিস, সম্মেলনে যোগ দেওয়ার জন্য বিদেশে যাওয়ার সুযোগ। এছাড়াও আবেদনকারী নয়, এবার হয়ে যেতে পারেন চাকরির নিয়োগকর্তা।

  • যোগাযোগ করুন:-
    Ratnadip Mukherjee
    Development officer
    Lici Raiganj branch
    code -738045
    Ph num – 7501436130
    Whats app- 8016432728