Paramparik-Scholarship-Online-Application-2022

পারম্পরিক স্কলারশিপটি একটি প্রাইভেট স্কলারশিপ। সাধারণত পশ্চিমবঙ্গের মেধাবী ও আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া দুঃস্থ পড়ুয়াদের জন্য পারম্পরিক ফাউন্ডেশনের তরফ থেকে এই স্কলারশিপটি দেওয়া হয়ে থাকে। কারা কারা এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবে, কীভাবে আবেদন করতে হবে, আবেদন করার জন্য কি কি লাগবে সমস্ত কিছু বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করবো আজকের এই পোষ্টে। চলুন শুরু করা যাক।

• পারম্পরিক স্কলারশিপের উদ্দেশ্য:-
পারম্পরিক নামে একটি নন-প্রফিট সংস্থা পশ্চিমবঙ্গের আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া দুঃস্থ ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনায় আর্থিকভাবে সহায়তা করার উদ্দেশ্য জন্য পারম্পরিক স্কলারশিপটি চালু করে।

• পারম্পরিক স্কলারশিপে আবেদন করার জন্য প্রয়োজনীয় যোগ্যতা :-
যেসব ছাত্রছাত্রীরা মাধ্যমিক কিংবা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় ৮০% কিংবা তার বেশী নম্বর পেয়েছে তারা পরবর্তী নতুন যেকোনো কোর্সে, যেমন:- মেডিক্যাল, ইঞ্জিনিয়ারিং, নার্সিং, গ্র্যাজুয়েশন, মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি হওয়ার সময়ে এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবে। ৮০% এর কম নাম্বার পেলেও পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবে। তবে সেক্ষেত্রে এই স্কলারশিপের জন্য সিলেক্টেড হওয়ার চান্স কিছুটা কম।

• পারম্পরিক স্কলারশিপে আবেদন করার শর্ত:-
(১) আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
(২) আবেদনকারীকে অবশ্যই মাধ্যমিক কিংবা উচ্চমাধ্যমিক একটি ভালো নম্বর পেয়ে পাশ করে থাকতে হবে।
(৩) আবেদনকারীকে অবশ্যই নতুন কোন কোর্স, যেমন:- মেডিক্যাল, ইঞ্জিনিয়ারিং, নার্সিং, গ্র্যাজুয়েশন কিংবা মাস্টার্স কোর্সে ভর্তি হতে হবে।
(৪) আবেদনকারীকে অবশ্যই আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারের সদস্য হতে হবে।
(৫) আবেদনকারী তার শেষ কোর্সের পরীক্ষায় ৮০% নম্বর পেয়ে পাশ করে থাকলে অগ্রাধিকার পাবে।

• পারম্পরিক স্কলারশিপ থেকে যে যে সুবিধা পাওয়া যাবে?
(১) এই স্কলারশিপের আর্থিক অনুদানের পরিমাণ বিভিন্ন পড়ুয়ার ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম হবে।
(২) এই স্কলারশিপে আর্থিক অনুদানের পরিমাণ নির্ভর করবে আর্থিক অবস্থা এবং বর্তমান অবস্থার ওপর।
(৩) এই স্কলারশিপে স্কলারশিপ দাতা সংস্থা আর্থিক অনুদান ছাড়াও পঠন পাঠনের সহায়তা করার জন্য পাঠ্যবইও দিয়ে থাকে।

• পারম্পরিক স্কলারশিপে পড়ুয়াদের নির্বাচন পদ্ধতি:-
(১) প্রথমে আবেদনকারী সমস্ত পড়ুয়াদের অ্যাকাডেমিক স্কোর এবং আর্থিক পরিস্থিতির ওপর নির্বাচন করে কিছু পড়ুয়াকে নির্বাচন করা হয়।
(২) বাছাই করা পড়ুয়াদের একটি ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য পারম্পরিক ফাউন্ডেশনের অফিসে ডাকা হয়।
(৩) ইন্টারভিউতে পড়ুয়াদের কিছু প্রশ্ন করা হয়।
(৪) তারপর নির্বাচিত পড়ুয়াদের ডকুমেন্টস ভেরিফিকেশন এর জন্য ডাকা হয়।
(৫) এসমস্ত প্রসেস হয়ে যাওয়ার পর যেসব পড়ুয়া নির্বাচিত হয় তারা এই স্কলারশিপের সুবিধা পায়।
একবার এই স্কলারশিপের জন্য নির্বাচিত হয়ে গেলে প্রতি শিক্ষাবর্ষে রিনুয়াল করা যাবে।

• পারম্পরিক স্কলারশিপের আবেদন পদ্ধতি:- এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে হবে ইমেইলের মাধ্যমে। ইমেইলের সাবজেক্টে Application for Paramparik Scholarship 2022 লিখতে হবে। এবং ইমেইলে আবেদনকারীর নাম, অভিভাবকের নাম, ঠিকানা, কন্ট্যাক্ট নাম্বার, বর্তমানে কোন কোর্সে পাঠরত, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নাম, মাধ্যমিক/উচ্চমাধ্যমিকে প্রাপ্ত নাম্বারের পার্সেন্টেজ, মাধ্যমিক/উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা কত সালে পাশ করা হয়েছে, পারিবারিক বার্ষিক ইনকাম এবং রিমার্ক দিতে হবে। এরপর মাধ্যমিক কিংবা উচ্চ মাধ্যমিকের মার্কশীট এবং বর্তমানে যে করছে পড়াশোনা করা হচ্ছে তার অ্যাডমিশনের রিসিপ্টের স্ক্যান কপি অ্যাটাচ করে ইমেইলে পাঠাতে হবে। যে ইমেইল অ্যাড্রেসে ইমেইলে পাঠাতে হবে সেটি হলো [email protected]

• পারম্পরিক স্কলারশিপে আবেদন করার লাস্ট ডেট:- এই স্কলারশিপের আবেদন করার কোনো নির্দিষ্ট লাস্ট ডেট নেই। যেকোনো নতুন কোর্সে ভর্তি হয়ে আবেদন করা যাবে।

এই স্কলারশিপ সংক্রান্ত কোনো জিজ্ঞাসা থাকলে [email protected] এই ইমেইল আইডিতে মেইল করে জেনে নিতে পারবেন।

পোষ্টটি ভালোলাগলে বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করুন এবং এরকম আর‌ও তথ্য পেতে আজই যুক্ত হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে