E-Shram-Card-New-Update-2022

আপনার যদি ই-শ্রম কার্ড থেকে থাকে তবে বীমার পাশাপাশি আরও কিছু সুযোগ সুবিধা আপনি পেয়ে যেতে পারেন। তার মধ্যে একটি সুবিধা হলো PDS। এটি একটি প্রকল্পPDS প্রকল্পের আন্ডারে দরিদ্র সীমার নীচে থাকা মানুষেরা ৩৫ কেজি এবং দরিদ্র সীমার ওপরে থাকা মানুষেরা ১৫ কেজি অতিরিক্ত চাল ও গম পেয়ে থাকেন সরকারের তরফ থেকে।

ই-শ্রম কার্ডের বিভিন্ন স্কিমের থেকে নানান রকম সুবিধা পাওয়া যায়। যেকোনো ব্রাউজার থেকে ই-শ্রম কার্ডের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট eshram.gov.in ওপেন করলে Menu অপশনের ডানদিকে যে থ্রি লাইন দেখা যাবে। এই থ্রি লাইনটিতে ক্লিক করলে দেখা যাবে Schemes বলে একটি অপশন রয়েছে। সেটিতে ক্লিক করে Social Security Welfare Scheme এ ক্লিক করলে এর আন্ডারে যে প্রকল্প গুলি রয়েছে সবকটি ওপেন হয়ে যাবে। এরমধ্যেই একটি স্কিম রয়েছে যার নাম PDS। এই স্কিম এর জন্য কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন, এই স্কিম থেকে কি কি সুযোগ সুবিধা পাওয়া যাবে? তা জেনে নেবো আজকের এই পোস্টে।

More News:- Job Offers at District Court: Eligibility Class 8 and Madhyamik

• স্কিমের নাম:- PDS

• PDS স্কিমের আওতায় আসার জন্য কিংবা আবেদন করার জন্য কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন?
(১) আবেদনকারীকে অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।
(২) দারিদ্র্যসীমার নীচে থাকা যেকোনো পরিবার এই স্কিমের জন্য আবেদনযোগ্য।
(৩) পরিবারে ১৫-৫৯ বছরের মধ্যে কোন সদস্য না থাকলে সেই পরিবার‌ও আবেদন যোগ্য।
(৪) পরিবারে কোন প্রতিবন্ধী সদস্য থাকলে এই স্কিম এর সাথে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনেও সুবিধা পাওয়া যাবে।
(৫) যে পরিবারে স্থায়ী চাকরিজীবী নেই, কেবল নৈমিত্তিক শ্রমিক (পরিযায়ী কিংবা অসংগঠিত শ্রমিক) নিযুক্ত তারাও এই স্কিমের জন্য আবেদনযোগ্য।

More News:- মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পাশ করলেই রাজ্য সরকার দেবে ১৮ হাজার টাকা

• PDS স্কিম থেকে কি কি সুযোগ-সুবিধা পাওয়া যাবে?
(১) প্রতিমাসে ১৫ কেজি চাল ও গম দেওয়া হবে। দারিদ্র্যসীমার নীচে থাকা পরিবারগুলিকে প্রতিমাসে ৩৫ কেজি খাদ্যশস্য দেওয়া হবে।

(২) অভিবাসী শ্রমিকরা এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে গিয়ে কাজ করলেও এই স্কিমের সুবিধা পেয়ে যাবেন।

• অফিসিয়াল ওয়েবসাইট:- Link

এই প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি নিয়ে আমরা পরের কোনো লেখায় আলোচনা করবো, সেই লেখা সবার আগে পেতে এখুনি যুক্ত হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে- Link