Motor-Vehicle-Act-2022

বাইক নিয়ে বাইরে বের হলেই হেলমেট পরা বাধ্যতামূলক (Motor Vehicle Act 2022)। না হলে ট্রাফিক নিয়মানুসারে দিতে হয় ফাইন। হেলমেট পরলে আমাদের নিজেদেরই সুবিধা। এতে যেমন বিভিন্ন দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যেতে পারি, তেমন‌ই বড়ো কোনো ক্ষতিও আমরা এড়াতে পারি। আর এই সমস্ত কারনে বা পুলিশের ভয়ে হেলমেট পরতে বাধ্য হন অনেকেই।

আপনি কি জানেন হেলমেট পরে বের হলেও আপনাকে ফাইন দিতে হতে পারে? কোন কোন ক্ষেত্রে? কেন ? আপনাকে ফাইন দিতে হবে সমস্ত কিছু রইল বিস্তারিত।

রাস্তার পুলিশেরা যদি বাইক আটকে সেই বাইকের কাগজপত্র দেখতে চায়, যেমন- লাইসেন্স, ধোঁয়া পরীক্ষার রিপোর্ট প্রভৃতি‌ তাহলে দেখা যাবে বেশিরভাগ বাইক চালকের কাছেই এইসব কাগজপত্র পাওয়া যাবে না। ঠিক তেমনই যদি হেলমেটগুলো ভালো করে পর্যবেক্ষন করা যায় তবে বেশিরভাগ হেলমেট দেখা যাবে ত্রুটিপূর্ণ। আর আপনার হেলমেট যদি এমন ত্রুটিপূর্ণ হয়ে থাকে, যেমন- স্ট্র্যাপ না থাকলে বা ছিঁড়ে গেলে, হেলমেট উল্টো করে পরলে এই সমস্ত কারনে আপনাকে দিতে হবে ২ হাজার টাকা ফাইন। দেশে পথ দুর্ঘটনা কমানোর জন্য 1998 সালের মোটর ভেহিকল অ্যাক্ট আপডেট করেছে ভারত সরকার , আর সেই অ্যাক্টেই এই সমস্ত বিবরন দেওয়া রয়েছে ।

আরও পড়ুন:- SC, ST, OBC সার্টিফিকেট কীভাবে বানাবেন? আবেদন পদ্ধতি সম্পূর্ণ জেনে নিন

হেলমেট পরে যে সব ভুল করলে আপনাকে জরিমানা দিতে হতে পারে:-
১। চালক হেলমেট পরেছেন, অথচ সেই হেলমেটের স্ট্র্যাপ খোলা আছে বা বাঁধা নেই, তাহলে ১০০০ টাকা জরিমানা ধার্য করা হবে।

২। চালকের হেলমেটটির উপরে BIS এর সার্টিফিকেশন বা সমজাতীয় কোন মার্ক থাকতে হবে। না হলে তাকে ১০০০ টাকা ফাইন বা জরিমানা দিতে হবে ।

৩। লালবাতি থাকা সত্ত্বেও যদি হেলমেট পড়া কোনো চালক ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করে যাওয়ার চেষ্টা করে তাহলে তাকে ২০০০ টাকা জরিমানা দিতে হবে।

৪। চালক যদি তার বাইকটি ওভারলোড করে রাস্তায় নিয়ে বেরোন, তাহলে ২০,০০০ টাকা ফাইন দিতে হবে। শুধু তাই নয়। প্রতি টন বাবদ সেই চালককে ২০০০ টাকা অতিরিক্ত জরিমানা দিতে হতে পারে।

তাই হেলমেট পড়ার সাথে সাথে বাকি নিয়মগুলোও মেনে চলুন। সতর্ক থাকুন, নিরাপদ থাকুন।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে