Important-questions-and-answers-about-Swami-Vivekananda-Scholarship

ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গের ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মেধাতালিকা প্রকাশিত হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের অর্থনৈতিক প্রতিকূলতা যাতে তাদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে বাধা হয়ে না দাঁড়ায় সেই জন্য দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপ (Swami Vivekananda Merit Cum Means Scholarship) প্রদান করা হয়।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে যে সকল স্কলারশিপ প্রদান করা হয় তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হলো এই স্কলারশিপটি। এই স্কলারশিপে আবেদনকারী শিক্ষার্থীরা তাদের পড়াশোনার ক্ষেত্রে সাহায্য হিসেবে মাসিক ১০০০-৫০০০ টাকা পর্যন্ত অনুদান পেয়ে থাকেন। মাধ্যমিক থেকে শুরু করে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরেও দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা এই স্কলারশিপের অনুদান পেয়ে থাকেন। আপনার ক্ষেত্রেও যদি আপনার পরিবারে আর্থিক অবস্থা আপনার পড়াশোনার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় তবে আজই আবেদন করুন স্কলারশিপের অনুদানের জন্য।

আজ আমরা আলোচনা করবো, এমন কয়েকটি বিষয় যে বিষয়গুলি নিয়ে বেশিরভাগ ছাত্রছাত্রীদের মধ্যেই সংশয় রয়েছে। চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক কি এই বিষয়গুলো:-

১. উচ্চমাধ্যমিকের পর যদি আপনি স্নাতক স্তরে অনার্সের বদলে পাশ কোর্সে ভর্তি হন তবে কি আপনি এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন?

এক্ষেত্রে এখনো পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে কোন নির্দিষ্ট নির্দেশিকা দেওয়া হয়নি অর্থাৎ উচ্চমাধ্যমিকের পর স্নাতক স্তরের অনার্স কিংবা পাশ যে কোনো কোর্সে ভর্তি হলেই শিক্ষার্থীরা এই স্কলারশিপে আবেদনের যোগ্য।

২. এই স্কলারশিপের আবেদন কবে থেকে শুরু হবে ?

বিভিন্ন রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে যে, আগামী সেপ্টেম্বর কিংবা অক্টোবর মাসের মধ্যেই শুরু হতে চলেছে স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপের আবেদন। যদিও এ ব্যাপারে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে অফিসিয়ালি কিছুই জানানো হয়নি। তবে আশা করা হচ্ছে যে, আগামী সেপ্টেম্বর কিংবা অক্টোবর মাসের মধ্যেই স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপ (Swami Vivekananda Merit Cum Means Scholarship)-এর আবেদনের তারিখ এবং নির্দেশিকা জানানো হবে। এই সমস্ত বিষয়ে জানতে অবশ্যই নজর রাখতে হবে স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে https://svmcm.wbhed.gov.in/

৩. মাধ্যমিক কিংবা উচ্চমাধ্যমিকের পর ITI কোর্সে ভর্তি হলে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ পাবেন?

মাধ্যমিক হোক বা উচ্চমাধ্যমিক যেকোনো পরীক্ষার পরই ITI কোর্সে ভর্তি হলে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ পাওয়া হবে না। উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে আবেদনের ক্ষেত্রে যে কোন বিষয়ে স্নাতক স্তরের কোর্সে অথবা মেডিক্যাল, ইঞ্জিনিয়ারিং, ডিপ্লোমা সংক্রান্ত যে সমস্ত কোর্স রয়েছে তা যেকোনো একটিতে ভর্তি হলে শিক্ষার্থীরা স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অনুদান পাবেন। কিন্তু ITI কোর্সের শিক্ষার্থীরা এই স্কলারশিপটির জন্য আবেদন করতে পারবেন না।

৪. আবেদনের ক্ষেত্রে পরিবারের বাৎসরিক আয় কত হতে হবে?

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নির্দেশিকা অনুসারে আবেদনকারী ছাত্র-ছাত্রীর বাৎসরিক পারিবারিক আয় ২,৫০,০০০ টাকার কম হতে হবে।

৫. General ক্যাটাগরির অনেক শিক্ষার্থীই প্রশ্ন করে থাকেন যে তারা কি স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন?

এক্ষেত্রেও বলা যায়, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নির্দেশিকা অনুসারে General, SC, ST, OBC সহ সমস্ত জাতি উপজাতি এবং জনগোষ্ঠীর ছাত্রছাত্রীরা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই ৬০ শতাংশ নম্বর নিয়ে মাধ্যমিক অথবা উচ্চমাধ্যমিকে উত্তীর্ণ হতে হবে এবং ওইসব ছাত্র-ছাত্রীদের পরিবারের বাৎসরিক আয় ২,৫০,০০০ টাকার কম হতে হবে।

৬. এটা কি কোনো জেলাভিত্তিক স্কলারশিপ অর্থাৎ কোনো নির্দিষ্ট জেলার শিক্ষার্থীরাই এই স্কলারশিপে আবেদন করতে পারবেন?

এটি কোনো জেলা ভিত্তিক স্কলারশিপ নয়। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নির্দেশিকা অনুসারে, সমগ্র পশ্চিমবঙ্গের সকল ছাত্র-ছাত্রী এই স্কলারশিপের আবেদন করতে পারবেন।

এইরকম স্কলারশিপ সংক্রান্ত আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে