New-prakalpa-of-prime-minister-for-giving-job-to-unemployed-youths

আপনি কী চাকরি সংক্রান্ত কোনো সরকারি প্রকল্পের খোঁজ করছেন? তাহলে এই খবরটি আপনার জন্য। কেন্দ্রীয় সরকারের চালু করা এই জনপ্রিয় প্রকল্পে আবেদন করে মাত্র ৩ থেকে ৬ মাসের ট্রেনিং করেই পেয়ে যাবেন ভালো স্যালারি বিশিষ্ট চাকরি। কী এই প্রকল্প, কারা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন, আবেদন পদ্ধতি ইত্যাদি আরও নানান প্রকল্প সংক্রান্ত তথ্য নিয়ে নীচে বিশদে আলোচনা করা হলো

• প্রকল্পের নাম- দীনদয়াল উপাধ্যায় গ্রামীণ কৌশল্য যোজনা (DDU-GKY)

• প্রকল্পের সুবিধা :-
কেন্দ্রীয় সরকারের এই প্রকল্পের মাধ্যমে গ্রামের আর্থিকভাবে পিছিয়ে থাকা পরিবারগুলোর যুবক-যুবতীদের সম্পূর্ণ বিনামূল্যে স্কিল ট্রেনিং দেওয়া হয় এবং ট্রেনিং শেষে তাদের কোনো ভালো প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি দেওয়া হয়।

• কারা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবে?
(১) ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।

(২) ট্রেনিং প্রোগ্রামগুলোতে অংশগ্রহণের জন্য বয়স ১৮ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে হতে হবে।

(৩) শিক্ষাগত যোগ্যতা অতি সামান্য হলেও চলবে।

(৪) মহিলা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৪৫ বছর করা হয়েছে।

• কীভাবে আবেদন করবেন?
(১) আপনার নিকটবর্তী DDU-GKY ট্রেনিং সেন্টার খুঁজুন। এরজন্য https://kaushalpanjee.nic.in/ddugky/ekaushal এই ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার State (রাজ্য), District (জেলা), সেক্টর সিলেক্ট করে Submit এ ক্লিক করুন। তাহলে আপনার নিকটবর্তী প্রশিক্ষণ কেন্দ্রর নাম, ঠিকানা, যোগাযোগ নম্বর ইত্যাদি দেওয়া থাকবে।

(২) সেন্টারের প্রদত্ত নম্বরে ফোন করে কিংবা সেন্টারে গিয়ে যোগাযোগ করে, আপনি যে ট্রেডে অ্যাডমিশন নিতে চান সেই বিষয়ে তাদের বিষয়ে তাদের অবগত করুন। যদি সিট ফাঁকা থাকে তাহলে আপনাকে অ্যাডমিশন দেওয়া হবে।

(৩) এছাড়া https://kaushalpanjee.nic.in/ এই ওয়েবসাইটে গিয়ে Candidate Registration অপশনে ক্লিক করে যাবতীয় তথ্য ফিল আপ করে নিজেকে রেজিস্টার করুন। তাহলে প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত থাকা ব্যক্তিরা আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করে নেবে।

• আবেদন করতে কী কী লাগবে?
(১) সচিত্র পরিচয়পত্র প্রমানের জন্য আধার কার্ড / ভোটার কার্ড / সরকার প্রদত্ত কোনো ফটো আইডি কার্ড এগুলোর মধ্যে যে কোনো একটি।

(২) বয়সের প্রমাণপত্র হিসেবে উপরের কার্ডগুলোতে জন্মতারিখ উল্লেখ না থাকলে বার্থ সার্টিফিকেট লাগবে। যদি আধার বা ভোটার কার্ডে আপনার Date of Birth (জন্মতারিখ) দেওয়া থাকে তাহলে জন্ম সার্টিফিকেট লাগবে না।

(৩) প্রকল্পে গ্রহণযোগ্যতা (Eligibility) এর প্রমানের জন্য

° বিপিএল কার্ড (আপনার বা আপনার পরিবারের)

° আপনার পরিবারের যেকোনো কারোর MGNREGA কার্ড (অন্তত ১৫ দিনের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে)

° আপনার পরিবারের RSBY কার্ড (রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য বীমা যোজনা)

° AAY (অন্নপূর্ণা অন্ন যোজনা) অথবা BPL PDS কার্ড

° NRLM-সেলফ হেল্প গ্রুপ আইডেন্টিফিকেশন অথবা আপনার পরিবারের যেকোনো সদস্যের জন্য প্রদত্ত সার্টিফিকেট

• প্রকল্প সংক্রান্ত উল্লেখযোগ্য তথ্য:-
(১) দেশের প্রায় সব জেলাতেই এই প্রকল্পের অন্তত একটি করে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে।

(২) DDU-GKY যোজনায় প্রায় ৫৫০ টিরও বেশি ট্রেড রয়েছে এবং ৭০০ টিরও বেশি রকমের চাকরির সুযোগ রয়েছে।

(৩) ফ্রি ট্রেনিং শেষ হলে আপনাকে যেকোনো প্রাইভেট কোম্পানিতে নিয়োগ করা হবে এবং আপনার পারফরমেন্সের ওপর ভিত্তি করে আপনাকে ভালো স্যালারি দেওয়া হবে।

• প্রকল্পের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট – Link

এইরকম সরকারি প্রকল্প ও চাকরি সংক্রান্ত আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে