Ration-Card-big-update

গত বছর করোনার জেরে মানুষ গৃহবন্দি থাকায়, অসহায় মানুষের একমাত্র ভরসা ছিলো এই রেশন (Ration) ব্যবস্থা। আর সেই সময়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অনেক‌ অভিযোগ উঠেছিলো রেশন দুর্নীতি নিয়ে, সেই সমস্ত দুর্নীতি রুখতে রাজ্যের খাদ্য-দপ্তর বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহন করেছে, যেমন:- রেশন কার্ডের সাথে আধার লিংক , মোবাইল নম্বরের সংযোগ প্রভৃতি।

আধার সংযোগের ফলে রেশন গ্রাহকদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে হাতের আঙ্গুলের ছাপ বসিয়ে তাদেরকে মাসিক খাদ্যদ্রব্য বা রেশন সংগ্রহ করতে হয়। এক্ষেত্রে অনেকে সমস্যা দেখা যায়, অনেকেই মাঠে, ইটভাটায় কাজ করেন, আবার অনেকে বৃদ্ধ হয়ে গিয়েছেন। ফলে তাদের আঙ্গুল ক্ষয় হয়ে যায় এবং হাতের আঙ্গুলের ছাপ অস্পষ্ট হয়ে যায়, যার কারনে তাদের হাতের আঙ্গুলের ছাপ পরে না এই e-pos machine এ। তাদের জন্য আজকের এই আপডেট।

গত ১৩ই জুন থেকে খাদ্য দফতরের পক্ষ থেকে রেশন গ্রাহকদের ফোনে একটি মেসেজ আসতে শুরু করেছে, যেখানে বলা হয়েছে রেশন নেওয়ার সময় গ্রাহকেরা যেনো তাদের মধ্যমা অর্থাৎ মাঝের আঙ্গুল এবং অনামিকা অর্থাৎ কনিষ্ঠার আগের আঙ্গুলটির ব্যবহার করেন। খাদ্য দফতরের হঠাৎ এমন সিদ্ধান্তের কারন কি নিচে সেই সম্পর্কে বিস্তারিত দেওয়া হলো –

এবারে আপনার মনে নিশ্চয় প্রশ্ন জাগবে যে, বাকি আঙ্গুলগুলো দিয়ে কি তবে এই রেশন প্রক্রিয়ার সুযোগ পাওয়া যাবে না। এবিষয়ে খাদ্য-দপ্তর মারফত বলা হয়েছে যে, আসলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কারন অনেক গ্রাহকদের হাতের আঙ্গুলের ছাপ মিলছে না। তাদের ক্ষেত্রে বিকল্প হিসেবে আধারের নম্বর দিয়ে রেশন‌ তুলতে হচ্ছে, সেখানেও রেশন ডিলারদের বহু বিপত্তির মুখে পড়তে হয়েছে। ফলে অনেক রেশন ডিলার এই নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছেন খাদ্য-দপ্তরে। আর তারপরেই ডিলারদের সাথে একটি বৈঠক করেন খাদ্য-দপ্তরের আধিকারিকরা। বৈঠকে আধিকারিকরা জানান বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে এক বা দু’টি আঙ্গুলের ছাপ না নিয়ে আপনারা হাতের দশটি আঙ্গুলের ছাপ নিতে পারেন, খাদ্য-দপ্তরের এই সিদ্ধান্তকে মেনেও নিয়েছেন ডিলারদের একাংশ। তবে খাদ্য-দপ্তরের তরফ থেকে বলা হচ্ছে, গ্রাহকেরা যেনো প্রথমে তাদের হাতের মধ্যমা বা অনামিকা আঙ্গুলের ছাপ বসান, কারন এই দুটো আঙ্গুলের কাজ খুব কম হয়। ফলে আবছা না হওয়ার সুযোগ থাকে একারনেই খাদ্য দফতরের এই সিদ্ধান্ত।

এই সংক্রান্ত আরও আপডেট পেতে আমাদের পেজটিকে ফলো করে রাখুন এবং নীচে দেওয়া লিংকে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে যুক্ত হোন।