Ration-New-Rules-update-2022

আপনি কি পশ্চিমবঙ্গের খাদ্য সুরক্ষা প্রকল্পের একজন রেশন উপভোক্তা? তবে এই খবরটি আপনার জন্য। পশ্চিমবঙ্গের রেশন ব্যবস্থায় আসতে চলেছে এক বিরাট পরিবর্তন। রাজ্যের সাধারণ নাগরিকদের রেশন বন্টন ব্যবস্থায় স্বচ্ছতা আনতে ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন প্রদানের ব্যবস্থা চালু করেছে। এই পদ্ধতিতে গ্রাহকদের আধার নম্বর এবং ই-পস যন্ত্রে তাদের আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে যাচাই করে অথবা মোবাইল নম্বরে আসা ওটিপি ই-পস যন্ত্রে দিয়ে যাচাই করে তবেই রেশন প্রদান করা হয়। কিন্তু বর্তমানে এই বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে এক বিরাট পরিবর্তন আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের ডিলাররা।

এই বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন দেওয়ার বিরোধিতা করেছে রেশন ডিলারদের সংগঠন জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল। ইতিমধ্যেই জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার্সের পক্ষে খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষকে চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে। জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার্সের পক্ষে জানানো হয়েছে, ৮ই জুন থেকে রেশন ডিলারদের তরফে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন দেওয়া বন্ধ করা হবে। শুধুমাত্র ই-পস যন্ত্রে আধার নম্বর নথিভুক্ত করার মাধ্যমেই রেশন প্রদান করা হবে গ্রাহকদের। বাকি যে দুটি পদ্ধতি রয়েছে অর্থাৎ ই-পস যন্ত্রে গ্রাহকদের আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে যাচাই এবং মোবাইল নম্বরে আসা ওটিপি ই-পস যন্ত্রে যাচাই করার পদ্ধতি দুটি ৮ই জুন থেকে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার্স।

• আরও পড়ুন:- মোবাইলেই সংশোধন করা যাবে আধার কার্ডের নাম, জন্মতারিখ, ঠিকানা, জেনে নিন বিস্তারিত

জয়েন্ট ফোরাম ফর ওয়েস্ট বেঙ্গল রেশন ডিলার্স এর ডিলাররা সমবেতভাবে জানিয়েছেন, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন প্রদানের ফলে অনেক সমস্যায় পড়তে হচ্ছে রেশন ডিলারদের। তাদের মতে, অনেক গ্রাহকের ফোন নম্বর আধার নম্বরের সাথে লিংক করা নেই, কিছু গ্রাহকের আবার আধার কার্ড আপডেট করা নেই, অনেকের আবার মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করা হয়েছে। ফলত, রেশন ডিলারদের সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে রেশন দিতে গিয়ে। একইভাবে এ সকল কারণে সমস্যার মুখোমুখি হতে হচ্ছে গ্রাহকদেরও। সুতরাং গ্রাহকদের অসন্তোষ বাড়ছে।

এছাড়া রেশন ডিলারদের রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ই-পস যন্ত্রে গ্রাহকদের আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে যাচাই এবং মোবাইল নম্বরে আসা ওটিপি ই-পস যন্ত্রে যাচাই করার পদ্ধতি দুটিই ব্যর্থ হলে ই-পস যন্ত্রে শুধুমাত্র আধার নম্বর নথিভুক্ত করার মাধ্যমে গ্রাহকদের রেশন দেওয়া যাবে। কিন্তু যে সকল গ্রাহকদের এইভাবে রেশন প্রদান করা হয়েছে তাদের কার্ড ‘ব্লক’ করা হচ্ছে। ফলত রেশন ডিলার এবং গ্রাহকদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি বাড়ছে। তাই বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে রেশন দেওয়ার বিরোধিতা করছে রাজ্যের সমস্ত ডিলাররা।

• আরও পড়ুন:- বাড়িতে বসে মোবাইলেই আবেদন করুন Learner’s License জন্য, জেনে নিন কীভাবে করবেন

যদিও রেশন ডিলারদের এই মন্তব্য মানতে নারাজ রাজ্য সরকারের খাদ্য দপ্তর। হাতে দপ্তরে তরফে জানানো হয়েছে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সমস্ত কিছু যাচাই করে তবেই রেশন দেওয়া হবে গ্রাহকদের। সঠিক পদ্ধতিতে রেশন না দেওয়া হলে শাস্তির মুখে পড়তে হবে রেশন ডিলারদের।

রেশন ডিলারদের তরফে জানানো হয়েছে, তারা তাদের অবস্থানের কথা জানিয়ে দিয়েছেন। খাদ্য দপ্তর এর তরফ হয় তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিলে তাদের কিছু করার নেই।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে