West-Bengal-Krishak-Bandhu-scheme-new-update

আপনি কি কৃষকবন্ধু প্রকল্পের একজন উপভোক্তা? তবে এই খবরটি আপনার জন্য। কৃষকবন্ধু প্রকল্প হল পশ্চিমবঙ্গ সরকারের একটি জনকল্যাণমূলক প্রকল্প যার মাধ্যমে কৃষক এবং ভাগচাষীদের প্রায় ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিমা প্রদান করা হয়ে থাকে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে। কৃষক এবং ভাগচাষীরা যাতে চাষের জন্য প্রয়োজনীয় সার, বীজ, কীটনাশক ইত্যাদি দ্রব্যগুলো সময়মতো কিনতে পারে এবং টাকার জন্য যাতে কৃষকদের ঋণে জর্জরিত না হতে হয়, তা দেখাই এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য। এই প্রকল্পে কৃষকরা প্রতিবছর প্রায় ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত পেয়ে থাকেন।

তবে বর্তমানে অনেক কৃষকই এক নতুন সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন, যেটির অতি দ্রুত সমাধান না করা হলে কৃষকরা কোনো কিস্তির টাকাই পাবেন না। অনেকক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে, যেসকল কৃষকরা আগে কৃষকবন্ধু প্রকল্পে টাকা পেয়েছেন নতুন কিস্তির টাকা দেওয়ার ক্ষেত্রে ভেরিফিকেশনের সময়ে তাদের আবেদন বাতিল হয়ে যাচ্ছে। অনেকক্ষেত্রেই যেসকল নতুন কৃষক এই প্রকল্পে আবেদন করেছেন তাদেরকেও এরূপ সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। আজ আমরা আলোচনা করবো, কেনো এরূপ সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে কৃষকদের এবং এর সমাধান কি?

• সমস্যার কারণ:-
বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পুরোনো উপভোক্তা এবং নতুন আবেদনকারী কৃষকদের আবেদন বাতিল হওয়ার প্রধান কারণ হিসেবে দেখানো হচ্ছে Epic Error কে।

• চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক এই Epic Error কি:- যেসকল বয়স্ক কৃষক কৃষকবন্ধু প্রকল্পে আবেদন করেছিলেন তাদের ভোটার কার্ডের ক্ষেত্রে যে আইডেন্টিফিকেশন নম্বরটি থাকে সেটি যথেষ্ট বড়ো হয়। কিন্তু বর্তমানে বা কিছু বছর আগে থেকে যে ভোটার কার্ডগুলি ইলেকশন কমিশনের তরফে নাগরিকদের প্রদান করা হয় সেগুলির আইডেন্টিফিকেশন নম্বর যথেষ্ট ছোটো হয়। এইরূপ কোন বয়স্ক উপভোক্তা যদি ভোটার কার্ডের কোনরূপ আপডেট বা সংশোধনের জন্য আবেদন করে থাকেন তবে পরবর্তীতে সংশোধন বা আপডেট করে তাদের যে ভোটার কার্ড প্রদান করা হয় সেই ভোটার কার্ডটির আইডেন্টিফিকেশন নম্বরটি পাল্টে দেওয়া হয় এবং নম্বরটিকে নতুন কার্ডগুলির মত ছোটো করে দেওয়া হয়।

ভোটার কার্ডের এই আইডেন্টিফিকেশন নম্বরটিকেই Epic নম্বর বলা হয়ে থাকে। যেসকল কৃষকদের ক্ষেত্রে আইডেন্টিফিকেশন নম্বরটি পরিবর্তন হয়ে যায়, টাকা প্রদানের পূর্বে ভেরিফিকেশনের সময় পুরোনো আইডেন্টিফিকেশন নম্বর দিয়ে তাদের কোনো তথ্য খুঁজে পাওয়া যায় না। ফলত তাদের কৃষকবন্ধু প্রকল্পের টাকা বন্ধ হয়ে যায়। এর পাশাপাশি অনেক কৃষকই আবেদনের সময়ে আবেদনপত্রে নিজেদের ভোটার কার্ডের আইডেন্টিফিকেশন নম্বরটি ভুল লেখেন। তাদের ক্ষেত্রেও কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা বাতিল হয়ে যায়। যেহেতু পুরোনো বা ভুল আইডেন্টিফিকেশন নম্বর দিয়ে কৃষকদের কোনো তথ্যই পাওয়া যায় না তাই কৃষকবন্ধু প্রকল্পের ওয়েবসাইটে এই সমস্যাটিকে Epic Error হিসেবে দেখানো হয়।

• কীভাবে জানবেন আপনার আবেদন বাতিল হয়েছে কিনা:-
১. প্রথমেই আপনাকে পশ্চিমবঙ্গ সরকার কৃষক বন্ধু প্রকল্পের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট https://krishakbandhu.net/ এ যেতে হবে।
২. এরপর নথিভুক্ত কৃষকের তথ্য অপশনে ক্লিক করুন।
৩. এরপর আপনার সামনে যে ওয়েব পেজটি আসবে তাতে আপনার ভোটার কার্ডের নম্বরটি সঠিকভাবে লিখুন এবং ক্যাপচাটিতে ক্লিক করে সার্চ অপশনে ক্লিক করুন।
৪. এরপরই আপনি আপনার আবেদনের স্ট্যাটাস এবং ট্রানজেকশন স্ট্যাটাস দেখতে পারবেন।
এই স্ট্যাটাস অপশনটিতেই আপনি দেখতে পারবেন আপনার আবেদনটি গ্রহণ করা হয়েছে নাকি বাতিল করা হয়েছে।

• বাতিল করা হলে কি উপায়ে পুনরায় টাকা পাওয়া যাবে:-
যদি আপনার আবেদনটি বাতিল করা হয় তবে আপনাকে আপনার আসল ভোটার কার্ড এবং ভোটার কার্ডের একটি জেরক্স কপি নিয়ে AD অফিসে যোগাযোগ করতে হবে। অফিসের কর্মকর্তারা আপনার নতুন ভোটার আইডেন্টিফিকেশন নম্বরটি নথিভুক্ত করে আপনার সমস্যার সমাধান করে দেবেন।

বিভিন্ন রিপোর্ট থেকে জানা যাচ্ছে যে, এই জুন মাসেই কৃষকবন্ধু প্রকল্পের টাকা দেওয়া হবে। এবারে নতুন এবং পুরোনো আবেদনকারী কৃষকদের একইসাথে টাকা দেওয়া হবে বলেই জানা গেছে। যদিও এ ব্যাপারে এখনও পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে কিছুই জানানো হয়নি।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে