কোনো দীর্ঘযাত্রার সম্পূর্ণ পথ যেমন পুরোটাই সুগম নয়, ঠিক তেমনই একটি সম্পর্কে প্রতিটি মুহুর্ত এক নয়। প্রতিটি সম্পর্কে যেমন কিছু ভালো, সুখকর মুহূর্ত থাকে; একইভাবে থাকে ঝগড়া, কথাকাটাকাটির মতো কঠিন পরিস্থিতিও। আর পরিস্থিতি অনুযায়ী সামাল দিয়ে না চলতে পারলেই বিপদ। তবে যেকোনো সম্পর্কে সঙ্গীর সাথে ঝগড়া হওয়াটা ভীষণ স্বাভাবিক। দুজন ভিন্ন মানুষের মধ্যে মতভেদ হতেই পারে। কিন্তু পরিস্থিতি অস্বাভাবিক হতে থাকে যখন আপনার এবং আপনার সঙ্গীর মধ্যে প্রায়ই ছোটো ছোটো কারণে ঝগড়া হতে থাকে। আজ আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি এমন কতগুলো টিপস, যেগুলো মেনে চললে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবেন আপনিও (Relationship Tips)।

১. নিজের বক্তব্য বুঝিয়ে বলুন:-
মতানৈক্য হলে বেশিরভাগ মানুষই রেগে যান। আর এরূপ পরিস্থিতিতে মানুষ কেবলমাত্র তার নিজস্ব মতামতকেই প্রাধান্য দিয়ে থাকে। ফলত, ঝগড়া আরও বাড়তে থাকে এবং পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়ে যায়। এরূপ পরিস্থিতিতে আপনি কি ভাবছেন সেটা আপনার সঙ্গীকে বুঝিয়ে বলার চেষ্টা করুন। যদি তিনি আপনার কথা শুনতে না চান, তবে খানিকটা বিরতি নিন। পরে ঠাণ্ডা মাথায় আপনারা দুজন ঝগড়ার বিষয়ে কথা বলুন, আপনার বক্তব্য বুঝিয়ে বলুন। এতে সমস্যার সমাধান হতে পারে।

আবেদন করুন টাটা ক্যাপিটাল পাঙ্খ স্কলারশিপে এবং পেয়ে যান বাৎসরিক ৫০,০০০ টাকা

২. পরস্পরকে গুরুত্ব দিন:-
বর্তমানে পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে মানুষ সারাদিন ব্যস্ত। আর তাতেই মানুষ এবং তাদের প্রিয় মানুষের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হচ্ছে। আপনাদের ক্ষেত্রেও যদি এরূপ পরিস্থিতি তৈরি হয়ে থাকে, তবে যতটা সম্ভব আপনার সঙ্গীর জন্য সময় বের করুন। যদি প্রতিদিন অল্প সময়ের জন্যও দেখা করতে পারেন তাহলে খুবই ভালো হয়। যদি তা না করতে পারে হাজার ব্যস্ততার মাঝেও আপনার সঙ্গীর খোঁজ নিন, তা ফোনে হোক কিংবা মেসেজের মাধ্যমে। রোজদিনের নানান ছোটো ছোটো ঘটনার খবর নিন। এতে আপনাদের সম্পর্কে ঝগড়া অনেকটা কমতে পারে।

৩. যেকোনো পরিস্থিতিতে সঙ্গীর পাশে থাকুন:-
দেখুন, কোনো মানুষই অন্য কোনো মানুষের পক্ষেই অন্য কোনো মানুষের মনের মতো হওয়া সম্ভব না। আপনিও যেমন আপনার সঙ্গীর সব ইচ্ছে পূরণ করতে পারবেন না, একইভাবে আপনার সঙ্গীর পক্ষেও আপনার সব ইচ্ছে পূরণ করা সম্ভব নয়। সুতরাং আপনার সঙ্গী আপনাকে ভালো রাখার জন্য যতটুকু করছেন তার জন্য তার প্রশংসা করুন। আর আপনিও আপনার সঙ্গীকে খুশি রাখার জন্য যথাসম্ভব চেষ্টা করুন। যেকোনো পরিস্থিতিতে তা খারাপ হোক বা ভালো আপনার সঙ্গীর পাশে থাকার চেষ্টা করুন। দুঃসময়ে তাকে সাহস দিন। এতে পরিস্থিতি যথেষ্ট স্বাভাবিক হয়ে উঠবে।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আবেদন করুন এই পদ্ধতিতে এবং পেয়ে যান ১,৪০,০০০ টাকা

৪. রাগের ওপর নিয়ন্ত্রণ রাখুন:-
সঙ্গীর কোনো কথা বা কাজ আপনার অপছন্দ হলে রাগ হওয়াটা স্বাভাবিক। কিন্তু রাগের বশে এমন কোনো কথা বলবেন না যাতে আপনার সঙ্গী কষ্ট পায় অথবা আপনাদের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়ে যায়। এতে করে সম্পর্কে খারাপ প্রভাব পড়বে। যতোটা সম্ভব মাথা ঠাণ্ডা রাখার চেষ্টা করুন এবং কথা বলে সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করুন।

৫. সঙ্গীর বক্তব্য মন দিয়ে শুনুন:-
আপনার বক্তব্য যেমন আপনার সঙ্গীকে বুঝিয়ে বলবেন ঠিক একইভাবে আপনার সঙ্গীর বক্তব্য মন দিয়ে শুনুন এবং তিনি কি চাইছেন তা বোঝার চেষ্টা করুন। তিনি কোনো কথা বললে আপনি তৎক্ষণাৎ আপনার কথা বলতে শুরু করবেন না বরং তার কথা মন দিয়ে শুনুন। তার কথা শেষ পর্যন্ত শুনে আপনার যা বলার তা ঠাণ্ডা মাথায় আপনার সঙ্গীকে বুঝিয়ে বলুন। তাকে বোঝান যে, তিনি আপনার কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ।

পশ্চিমবঙ্গে শুরু হয়ে গেল অগ্নিপথ প্রকল্পের মাধ্যমে সেনাবাহিনীতে নিয়োগের আবেদন প্রক্রিয়া, সমস্ত খুঁটিনাটি জেনে নিন