Get-shocked-to-see-huge-electric-bill-Follow-this-method-and-get-rid-of-electricity-bills-forever

বর্তমানে বিদ্যুৎ ছাড়া মানুষের জীবন প্রায় অচল। কিন্তু বিদ্যুতের জোগান ক্রমশ কমে আসছে। আর তা নিয়েই রীতিমতো চিন্তিত ভারত সরকার। ফলত বিদ্যুৎ শক্তির বদলে অন্য প্রচলিত শক্তিগুলি ব্যবহারের উপর জোর দিচ্ছে কেন্দ্র সরকার। এই প্রচলিত শক্তিগুলির ব্যবহার কেবল পরিবেশের পক্ষেই লাভজনক নয়, যিনি ব্যবহার করছেন তার পক্ষেও যথেষ্ট লাভজনক। এরূপ বিভিন্ন দিক মাথায় রেখে ভারত সরকারের তরফে ছাদে সোলার প্যানেল বসিয়ে সৌরশক্তি উৎপাদন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এই স্কিমটি সোলার রুফটপ সাবসিডি স্কিম (Solar Rooftop Subsidy Scheme) নামে পরিচিত। আজ আমরা আলোচনা করবো কিভাবে এই সোলার প্যানেল আপনারা নিজেদের বাড়িতে বসাতে পারবেন, এতে আপনাদের কি কি লাভ রয়েছে ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি (Electric Bill)।

চলুক তবে দেখে নেওয়া যাক, এই সোলার প্যানেল বসিয়ে আপনারা কোন কোন দিক থেকে লাভ পেতে চলেছেন?
১. এই প্রকল্পে আপনাকে সৌর প্যানেল কেনার জন্য যে খরচ তার ৪০ শতাংশ খরচ ভর্তুকি দেওয়া হবে। এর পাশাপাশি কেন্দ্র সরকার ছাড়াও একাধিক রাজ্য সরকারের তরফেও দেওয়া হচ্ছে ভর্তুকি। ফলত খরচ যথেষ্ট কম।
২. সোলার প্যানেল বসানোর সাথে বাড়িতেই উৎপন্ন করতে পারবেন প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ। ফলত আলাদা করে বিদ্যুৎ বিলের খরচ আর থাকছে না (Electric Bill)। প্রতিমাসে প্রায় ৪০০০ টাকারও বেশি টাকার বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয় করতে পারবেন। এই হিসাব অনুসারে এক বছরে প্রায় ৫০,০০০ টাকা সাশ্রয় করতে পারবেন।
৩. আপনার বাড়ির ব্যবহারের পরও অতিরিক্ত সৌর বিদ্যুৎ থাকলে আপনি তা বিক্রি করতে পারবেন। ফলত এভাবে বিদ্যুৎ বিক্রি করেও যথেষ্ট লাভ করা সম্ভব।

• এই স্কিমের আওতায় কিভাবে রেজিষ্টার করবেন:-
১. এই স্কিমের আওতায় নিজের নাম রেজিস্টার করার জন্য আপনাকে প্রথমেই কেন্দ্র সরকারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট https://solarrooftop.gov.in/ এ যেতে হবে।
২. এরপর Apply For Solar Roofing অপশনে ক্লিক করতে হবে।
৩. এরপর নিজের রাজ্যের নাম সঠিকভাবে নির্বাচন করুন।
৪. এরপর আপনার সামনে আসবে তাতে সমস্ত তথ্যগুলি সঠিকভাবে পূরণ করুন।
৫. এরপর সাবমিট অপশনে ক্লিক করলে এই স্কিমের আওতায় আপনার নাম রেজিষ্টার হয়ে যাবে।

• ব্যবহারের খরচ:-
একটি গৃহস্থ বাড়ির জন্য ২-৪ কিলোওয়াটের একটি সোলার প্যানেল বসালেই যথেষ্ট। এই সোলার প্যানেলের সাহায্যে আপনারা ১টি এসি, ২-৪টি ফ্যান, ১টি ফ্রিজ, ৬-৮টি এলইডি আলো, ১টি জলের মোটর এবং টিভির মতো বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি যদি ৫০০ বর্গফুট ছাদেও সোলার প্যানেল স্থাপন করেন তাহলে প্ল্যান্টের ক্ষমতা হবে ৪.৬ কিলোওয়াট। এই সোলার প্যানেল স্থাপনের মোট ব্যয় হবে ১.৮৮ লক্ষ টাকা। যা ভর্তুকি দেওয়ার পরে কমে হবে ১.২৬ লক্ষ টাকা।
এই সোলার প্যানেলের সাহায্যে আপনারা এক বছরে প্রায় ৫০,০০০ টাকার বিদ্যুৎ বিল সাশ্রয় করতে পারবেন। যার থেকে মাত্র আড়াই বছরেই সোলার প্যানেল বসানোর পুরো টাকা উঠে আসবে।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে