Is-Ration-card-lost-or-torn-No-worries-Download-E-Ration-Card-at-your-mobile

সরকারের তরফ থেকে প্রায় সব কাজই এখন অনলাইনে করে দেওয়ার প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। এরই মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দাদের জন্য বিরাট সুখবর। এবার থেকে আপনি বাড়িতে বসে অনলাইনেই সহজে নিজের রেশন কার্ড ডাউনলোড করে নিতে পারেন। তবে এ রেশন কার্ডটি হলো E-Ration Card, আপনার অরিজিনাল রেশন কার্ড নয়। তবু চিন্তার কোনো কারণ নেই, E-Ration কার্ডও সবজায়গায় গ্রহণযোগ্য। এই ই-রেশন কার্ড দিয়েও আপনি অনায়াসে রেশন সামগ্রী নিতে পারবেন। চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক, কীভাবে ডাউনলোড করবেন নিজের ই-রেশন কার্ড।

• কীভাবে অনলাইনে E-Ration Card ডাউনলোড করবেন?
(১) প্রথমে আপনার মোবাইল বা ডেস্কটপ থেকে পশ্চিমবঙ্গ খাদ্য দপ্তরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট food.wb.gov.in এ যান।

(২) এবার বাঁদিকে Ration Card বক্সে ক্লিক করুন।

(৩) তারপরে সবার প্রথমের লিংক Download your e-Ration Card এ ক্লিক করুন।

(৪) তারপরে একেবারে নীচের দিকে Click to download e-Ration Card লিংকে ক্লিক করবেন।

(৫) এবার নিজের রেশন কার্ড নম্বর এবং রেশন কার্ড ক্যাটাগরি উল্লেখ করে Download অপশনে ক্লিক করবেন।

তাহলেই আপনার মোবাইলে E-Ration কার্ডটি পিডিএফ আকারে ডাউনলোড হয়ে যাবে। আপনি চাইলে এই কার্ডটি প্রিন্ট করে নিতে পারেন। E-Ration কার্ডের নীচের দিকে দেখবেন এটিএম, প্যান কার্ডের মতো দুদিকে ছোটো ডিজিটাল রেশন কার্ড দেখাবে। সেটি ভালো করে কেটে ল্যামিনেশন করে নিয়ে আপনি সেই E-Ration কার্ডটি নিজের সাধারণ রেশন কার্ডের মতোই বিভিন্ন কাজের জন্য ব্যবহার করতে পারেন।

ব্যাঙ্কের যে কোনো অসহযোগিতায় ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ করবেন কিকরে? জেনে নিন পুরো পদ্ধতি

• E-Ration কার্ডের সুবিধা :-
(১) কোনো কারণে নিজের অরিজিনাল রেশন কার্ডটি ভুলে গেলে আপনি মোবাইল থেকে E-Ration কার্ড ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারেন।

(২) E-Ration কার্ড দিয়ে আপনি নিজের রেশনও তুলতে পারবেন।

(৩) অনলাইনে কোনোক্ষেত্রে আপনাকে নিজের রেশন কার্ড চাইলে আপনি নিজের E-Ration কার্ডটি স্ক্যান করে আপলোড করতে পারেন। এই কার্ডেরও সমপরিমান যোগ্যতা রয়েছে।

উল্লেখ্য, E-Ration কার্ডে আপনার রেশন কার্ডের স্ট্যাটাসও দেখা যাবে। যদি E-রেশন কার্ডের নীচের দিকে QR কোডের পাশে লাল রঙের কালিতে × চিহ্ন দেখালে বুঝবেন আপনার রেশন কার্ডটি বন্ধ (Deactivated / Inactive) হয়ে গিয়েছে এবং পুনরায় তা চালু করতে হলে আপনাকে রেশন কার্ডের e-kyc করে নিতে হবে। যদি সবুজ রঙের কালিতে টিক চিহ্ন দেখায় তাহলে বুঝবেন আপনার রেশন কার্ডটি Active রয়েছে আপনার রেশন কার্ডটি বর্তমানে একদম সচল রয়েছে এবং এই রেশন কার্ড দিয়ে আপনি রেশন সংক্রান্ত কমবেশি প্রায় সমস্ত কাজ করে নিতে পারবেন। যদি E-Ration কার্ডে হলুদ রঙের কালিতে বিস্ময়সূচক চিহ্ন ! থাকে তাহলে আপনার রেশন কার্ডটি Active রয়েছে কিন্ত আধার লিংক করা নেই।

রাজ্যজুড়ে সাসপেন্ড ১ কোটি রেশন কার্ড, আপনার রেশন কার্ড ঠিক আছে তো?

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে