Start-this-business-and-earn-2-lakhs-rupees-monthly

আপনি কী ভালো কোনো ব্যবসা শুরু করতে চাইছেন? তাহলে এই খবরটি আপনার জন্য। বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষই ব্যবসার প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছেন। একঘেঁয়ে চাকরি করার থেকে ভালো কোনো ব্যবসা করে প্রচুর টাকা কামানোর স্বপ্ন বহু মানুষই দেখেন। তবে মনে রাখবেন, কখনও হুড়োহুড়ি করে ব্যবসা শুরু করবেন না। এর জন্য চাই সুদূর পরিকল্পনা, প্রয়োজনীয় পুঁজি ও সৃজণশীল দক্ষতা। আজকে এমন একটি ব্যবসা সম্পর্কে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো যেটি শুরু করার জন্য খুব বেশি অর্থ ও পরিশ্রমের দরকার নেই। উপযুক্ত বুদ্ধি থাকলে সহজেই এই ব্যবসা শুরু করে লক্ষ লক্ষ টাকা মুনাফা অর্জন করা যায়। চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক এই ব্যবসা সম্পর্কে (New Business Idea)।

• কী এই ব্যবসা?
পোল্ট্রি ফার্মের ব্যবসা। নিজের জায়গায় একটি পোল্ট্রি ফার্ম বানিয়ে সেখানে ১,০০০-২,০০০ মুরগি লালনপালন করে বছরে মোটা টাকা মুনাফা অর্জন করতে পারেন।

পোল্ট্রি ফার্মের ব্যবসা মূলত দু’ধরণের হয়। একটি হলো আপনি সম্পূর্ণ নিজের দায়দায়িত্ব ও খরচে পোল্ট্রি ফার্মের সরঞ্জাম , ডিম বিক্রি, মুরগি বিক্রি ইত্যাদি সবকিছু করবেন। অপরটি হলো যে আপনি কোনো পোল্ট্রি ফার্মের কোম্পানির অধীনে এই ব্যবসা করতে পারেন। এক্ষেত্রে, কোম্পানি থেকে মুরগির লালনপালন, ওষুধ, ভ্যাকসিন ইত্যাদি দেওয়া হয়। বর্তমানে যে সকল পোল্ট্রি ফার্ম করা হচ্ছে তা বেশিরভাগই কোম্পানির অধীনে করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে খাটুনিও কম এবং কমবেশি নির্দিষ্ট আয়ের ব্যবস্থা রয়েছে।

বিনা ইনভেস্টমেন্টে শুরু করুন এই ব্যবসা, মাসে আয় লক্ষাধিক

• পোল্ট্রি ফার্মের ব্যবসা শুরু করতে কী কী লাগবে?
(১) একটি বড়ো জায়গা যেখানে ১,০০০ থেকে ২,০০০ মুরগি পোষা যাবে। মনে রাখবেন, কোম্পানির অধীনে এই ব্যবসা করতে চাইলে শীতকালে মুরগি পিছু ১.৫ বর্গফুট এবং গরমকালে ১.৭ বর্গফুট জায়গা রাখা প্রয়োজন। তাহলেই কোম্পানি আপনার সঙ্গে এই বিজনেস শুরু করবে।

(২) পোল্ট্রি ফার্ম, একটা ফার্ম বানানোর জন্য আপনাকে কতো মুরগি পুষবেন সেই হিসেবে জায়গা নির্দিষ্ট করে তার ওপরে টিনের ফার্ম বানাতে পারেন। তার চারপাশে লোহার জাল লাগাতে পারেন। মনে রাখবেন, ফার্মটি যেনো শক্ত হয় যাতে ঝড়বৃষ্টি হলেও পোল্ট্রি ফার্মটির এবং মুরগীদের কোনো ক্ষতি হতে না পারে।

(৩) পোল্ট্রি ফার্ম রক্ষনাবেক্ষণের জন্য বিভিন্ন জিনিস। যেমন:- আলো, মুরগীদের জল খাবার মেশিন, ফ্যান, নীচে কাঠের গুঁড়ো বা তুষ ইত্যাদি।

(৪) প্রতিদিন মুরগীদের জন্য প্রয়োজনীয় খাবার।

• কীভাবে এই ব্যবসা শুরু করবেন?
আপনি নিজে এই ব্যবসা করতে চাইলে লোকালয় থেকে দূরে নিজের জায়গাতে পোল্ট্রি ফার্ম বানিয়ে এই বিজনেস শুরু করতে পারেন। একটি ভালো পোল্ট্রি ফার্ম বানাতে আপনার দেড়-দুই লক্ষ টাকা অবধি খরচ হতে পারে।

আপনি যদি কোম্পানির অধীনে এই ব্যবসা করতে চান তাহলে প্রথমে পোল্ট্রি ফার্ম বানিয়ে ১,০০০-২,০০০ অবধি মুরগি পুষবেন। কিছুদিন পরে কোম্পানির সুপারভাইজার এসে আপনার ফার্ম পরিদর্শন করে যদি আপনাকে মুরগি ফার্ম চালানোর জন্য উপযুক্ত বলে মনে করে তাহলে আপনার সাথে এই বিজনেস শুরু করবে। বিভিন্ন পোল্ট্রি ফার্ম বিজনেস কোম্পানি বিভিন্ন রকম সুবিধা দেয়। আপনি কোনো কোম্পানির অধীনে এই ব্যবসা শুরু করতে চান তা ভালো করে খতিয়ে নেবেন।

সাধারণত একহাজার থেকে দুহাজার মুরগি আপনি নিজে একা পুষতে পারবেন। তারবেশি মুরগি যদি ফার্মে পুষতে চান তাহলে আর একজনকে লাগতে পারে।

ব্যাঙ্কের যে কোনো অসহযোগিতায় ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ করবেন কিকরে? জেনে নিন পুরো পদ্ধতি

• পোল্ট্রি ফার্মের ব্যবসা থেকে কীভাবে টাকা কামাবেন?
মুরগির ডিম, মাংস বাজারে পাইকারি দরে বিক্রি করে প্রচুর অর্থ কামানো যায়। সাধারণত একটি মুরগি ২০ সপ্তাহ পরে ডিম দেয় এবং বছরে প্রায় ৩০০ টি ডিম দেয়। সুতরাং ১,০০০-২,০০০ মুরগি বছরে প্রায় ৩ থেকে ৬ লক্ষ অবধি ডিম পাড়তে পারে। বাজারে ডিমের পাইকারি দাম কমবেশি ৫ টাকা। তাহলে বুঝতেই পারছেন কী বিপুল পরিমান অর্থ আপনি ইনকাম করতে পারবেন। এছাড়া মুরগির মাংস বিক্রি করেই প্রচুর অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। ডিম মাংস বিক্রি করে বছরে প্রায় ৬ থেকে ৭ বার ফার্মে মুরগি চাষ করা যেতে পারে। এই ব্যবসা করে বছরে অন্তত ২ লক্ষ অবধি কামাতে পারবেন।

ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্কিত এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে