Aikyashree-Scholarship-for-the-session-2022-23-has-been-started-know-the-details

ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার কর্তৃক রাজ্যের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ভুক্ত (মুসলিম, শিখ, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, জৈন, পারসি) ছাত্রছাত্রীদের এই স্কলারশিপ দেওয়া হয়। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত পড়ুয়াদের প্রতি বছর এই ঐক্যশ্রী স্কলারশিপের (Aikyashree Scholarship) মাধ্যমে পড়াশোনায় উৎসাহ প্রদানের জন্য বৃত্তি প্রদান করা হয়। বর্তমানে প্রথম শ্রেণী থেকে একেবারে পিএইচডি পর্যন্ত এই স্কলারশিপ দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। এই স্কলারশিপ বিভিন্ন ভাগে পড়ুয়াদের দেওয়া হয়। যথা:-

১) প্রি-মেট্রিক ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ (প্রথম শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণীর পড়ুয়াদের জন্য)
২) পোস্ট – মেট্রিক ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ (একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণী থেকে একেবারে পিএইচডি স্তর পর্যন্ত)
৩) মেরিট কাম মিন্স (MCM) স্কলারশিপ (টেকনিক্যাল এবং প্রফেশনাল কোর্সগুলোর জন্য)
৪) অন্যান্য স্কলারশিপ প্রকল্পসমূহ [ SVMCM (স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ, TSP (ট্যালেন্ট সাপোর্ট প্রোগ্রাম স্টাইপেন্ড) ]

এবছরের ঐক্যশ্রী স্কলারশিপের নতুন আবেদন প্রক্রিয়া ১৫ ই আগস্ট, ২০২২ থেকে শুরু হয়েছে। পাশাপাশি ঐক্যশ্রী স্কলারশিপের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের রিনিউয়াল প্রক্রিয়াও একই দিন থেকে শুরু হয়েছে। উভয়ক্ষেত্রেই আবেদনের শেষ তারিখ ৩১ শে অক্টোবর,২০২২। তাই এই স্কলারশিপে আবেদনের যোগ্য হলে উক্ত সময়সীমার মধ্যেই অনলাইনে আবেদন করে নেবেন।

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর স্কলারশিপে আবেদন করুন এবং পেয়ে যান বার্ষিক ৬০০০ টাকা

• ঐক্যশ্রী সম্পর্কিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশিকা:-

(১) শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দারাই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিকেও এই রাজ্যের মধ্যে অবস্থিত হতে হবে।
(২) পূর্ববর্তী পরীক্ষায় নূন্যতম ৫০ শতাংশ নম্বর থাকতে হবে। (প্রথম শ্রেণী বাদে)
(৩) প্রি ও পোস্ট মেট্রিক স্কলারশিপে আবেদনের জন্য পরিবারের বার্ষিক আয় ২ লক্ষ টাকার মধ্যে হতে হবে। মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপের জন্য পরিবারের বার্ষিক আয় আড়াই লক্ষের মধ্যে হতে হবে।
(৪) প্রি-মেট্রিক ঐক্যশ্রী স্কলারশিপে আবেদনের ক্ষেত্রে পড়ুয়াদের অভিভাবকের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট তথ্যাদি দেওয়া যাবে কিন্তু অন্যান্য স্তরের ঐক্যশ্রী স্কলারশিপের জন্য ছাত্রছাত্রীদের নিজেদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বাধ্যতামূলক।
(৫) একজন পড়ুয়া শুধুমাত্র একটি স্কলারশিপের জন্যই আবেদন করতে পারবেন।
(৬) একটি মোবাইল নম্বর থেকে শুধুমাত্র একটি স্কলারশিপ রেজিস্ট্রেশন সম্ভব।
(৭) সকল প্রকার ঐক্যশ্রী স্কলারশিপের জন্য আধার কার্ড বাঞ্চনীয়।
(৮) স্কুলপড়ুয়াদের জন্য বাংলার শিক্ষা পোর্টালের ইউনিক আইডি বাধ্যতামূলক।

• আবেদনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট:- https://wbmdfcscholarship.org

• ঐক্যশ্রী স্কলারশিপের মাধ্যমে কতো টাকা করে দেওয়া হয়?
স্কলারশিপের টাকার পরিমান শ্রেণীহিসেবে ভিন্ন ভিন্ন হয়। যেমন:-

(১) ১ম থেকে ৫ ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ুয়াদের জন্য – বছরে ১,১০০ টাকা।

(২) ৬ ঠ থেকে ১০ ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়ুয়াদের জন্য – বছরে ৫,৫০০ টাকা। (হোস্টেল পড়ুয়ারা জন্য বছরে ১১,০০০ টাকা)

(৩) ১১ ও ১২ ক্লাসের পড়ুয়াদের জন্য – বছরে ১০,২০০ টাকা (হোস্টেল পড়ুয়ারা জন্য বছরে ১১,৯০০ টাকা)

(৪) টেকনিক্যাল ও ভোকেশনাল স্তরের পড়ুয়াদের জন্য – বার্ষিক ১৩,৫০০ টাকা (হোস্টেল পড়ুয়ারা জন্য বছরে ১৫,২০০ টাকা)

নতুন পদ্ধতিতে শুরু হয়ে গেলো স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের আবেদন প্রক্রিয়া, বিস্তারিত জেনে নিন

(৫) স্নাতক ও স্নাতকোত্তর কোর্সের জন্য – বার্ষিক ৬,৬০০ টাকা ( যারা পূর্ববর্তী পরীক্ষায় ৫০% থেকে ৬০% এর মধ্যে নম্বর পেয়েছেন) ও ১২,০০০-১৮,০০০ টাকা (যারা পূর্ববর্তী পরীক্ষায় ৬০% এর বেশী নম্বর পেয়েছেন)

(৬) M. phil ও PhD শিক্ষার্থীদের জন্য – মাসিক ৫,০০০ থেকে ৮,০০০ টাকা।

(৭) ডাক্তারি ও ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়াদের জন্য – ২৭,৫০০ টাকা (যারা পূর্ববর্তী পরীক্ষায় ৫০% থেকে ৬০% -এর মধ্যে নম্বর পেয়েছেন) এবং ৬০,০০০ টাকা (যারা পূর্ববর্তী পরীক্ষায় ৬০% এর বেশী নম্বর পেয়েছেন)

• এবছরের নোটিফিকেশন – Link

এইরকম স্কলারশিপ সম্পর্কিত আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে