Apply-for-Pradhan-Mantri-Jan-Arogya-Yojana-and-willg-et-free-treatment-up-to-Rs-5-lakh

আপনি কি আপনার পরিবারের স্বাস্থ্য এবং চিকিৎসা ক্ষেত্রে খরচ নিয়ে চিন্তিত? তবে এই খবরটি আপনার জন্য। সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে ক্রমাগত বাড়ছে নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন জিনিসপত্রের দাম আর এক্ষেত্রে পিছিয়ে নেই সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্য এবং চিকিৎসা ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় অর্থের অঙ্ক। ফলত প্রয়োজনকালে চিকিৎসার খরচের ভাবনায় রীতিমতো মাথায় হাত পড়েছে সাধারণ মানুষের। বিশেষত খেটে খাওয়া মানুষদের ক্ষেত্রে কোনো কঠিন অসুখের চিকিৎসার জন্য খরচ জোগানো যেনো অসম্ভবের সামিল। আর তাই সাধারণ মানুষের সুবিধার কথা মাথায় রেখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে ভারতের কেন্দ্র সরকারের তরফে কার্যকরী করা হয়েছে একটি নতুন যোজনা। এই যোজনার মারফত নির্দিষ্ট তালিকাভুক্ত দরিদ্র শ্রেণীর মানুষেরা যেকোনো সরকারি এবং কিছু বিশেষ বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাকালে বছরে সর্বোচ্চ ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত কভারেজ একেবারে বিনামূল্যে পেয়ে যাবেন। কেন্দ্র সরকারের এই যোজনাটি প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা অথবা আয়ুষ্মান ভারত যোজনা নামে পরিচিত। আর আজ আমরা আলোচনা করতে চলেছি কারা এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছেন, কিভাবে এই দুজনের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য আবেদন করবেন, কিভাবে আয়ুষ্মান ভারত যোজনা কার্ড পাবেন ইত্যাদি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য (Jan Arogya Yojana)।

• চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক, প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার অধীনে আপনারা কি কি সুবিধা পেতে চলেছেন:-
১. প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার অধীনে কেন্দ্র সরকারের তরফে এই যোজনার আওতায় থাকা প্রতিটি পরিবারকে সর্বোচ্চ ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্য বীমা প্রদান করা হবে।
২. পরিবারের আকার এবং সদস্যদের বয়স নিয়ে আলাদা করে কোনোরূপ নিয়ম নেই।
৩. চিকিৎসা ক্ষেত্রে মহিলা, কন্যা সন্তান এবং বয়সপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা অগ্রাধিকার পাবেন।
৪. জরুরি অবস্থায় যেকোনো সরকারি এবং কিছু নির্দিষ্ট তালিকাভুক্ত বেসরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা পাওয়া যাবে। এমনকী জেলা হাসপাতাল এবং বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পরামর্শ পাওয়া যাবে এরূপ হাসপাতালও এই যোজনার অন্তর্ভুক্ত।
৫. কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে এই যোজনার আওতায় ১৩৫০টি মেডিকেল প্যাকেজ নির্দিষ্ট করা হয়েছে এবং এই প্যাকেজগুলোর আওতায় আপনারা বিনামূল্যে ওষুধ, রোগ নির্ণয়কারী পরীক্ষা এবং যাতায়াত-সহ চিকিৎসা এবং ডে কেয়ার চিকিৎসা পাবেন।
৬. অনেক আগে হয়েছে এরূপ দীর্ঘমেয়াদি রোগের ক্ষেত্রেও চিকিৎসা পাওয়া যাবে। কোনো হাসপাতাল এই যোজনার অধীনে থাকা দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত কোনো ব্যক্তির চিকিৎসা করতে অস্বীকার করতে পারবে না।
৮. প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার আওতায় থাকা ব্যক্তিদের নগদবিহীন এবং কাগজবিহীন চিকিৎসা করা হবে।
৯. এই যোজনার অধীনে থাকা নাগরিকদের থেকে আলাদা করে কোনোরূপ চিকিৎসার খরচ চাইতে পারবে না হাসপাতালগুলি।
১০. এই যোজনার আওতায় থাকা নাগরিকরা সমগ্র ভারতের চেয়ে কোনো সরকারি হাসপাতালে এবং নির্দিষ্ট কিছু বেসরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা পাবে।

আপনি ব্যবসা করতে চাইলে, টাকা দেবে সরকার, আবেদন করুন এইভাবে

• কারা এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছেন:-
কেন্দ্র সরকার তরফে কার্যকরী অন্যান্য জনকল্যাণমূলক প্রকল্পগুলির মতো এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার ক্ষেত্রে নাগরিকদের কতোগুলি শর্ত পূরণ করতে হবে। তবে এই যোজনাটির ক্ষেত্রে গ্রাম এবং শহুরে এলাকার ক্ষেত্রে এই শর্তগুলি বিভিন্ন।
গ্রামীন এলাকার ক্ষেত্রে যেসকল পরিবারগুলি প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা সুবিধা পাবেন:-

১. তপশিলি জাতি এবং উপজাতি ভুক্ত পরিবারগুলি প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার সুবিধা পাবেন।
২. যে পরিবারগুলিতে ১৬ থেকে ৫৯ বছর বয়সী কোন প্রাপ্তবয়স্ক সদস্য নেই তারা এই যোজনার সুবিধা পাবেন।
৩. যে সমস্ত পরিবার গুলিতে কমপক্ষে একজন প্রতিবন্ধী সদস্য রয়েছে এবং কোনো বয়সপ্রাপ্ত সদস্য নেই সেই সকল পরিবারগুলি এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছেন।
৪. যেসকল ভূমিহীন পরিবারগুলি দৈনন্দিন শ্রম থেকে উপার্জন করে বেঁচে আছেন তারা এই যোজনার সুবিধা পাবেন।
৬. যারা ভিক্ষা করে জীবনযাপন করছেন তারা প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার সুবিধা পাবেন।
৭. ম্যানুয়াল স্ক্যাভেনজার পরিবারগুলি এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছেন।
৮. আদিম উপজাতি গোষ্ঠীভুক্ত মানুষেরা এই যোজনার অধীনে থাকা সমস্ত সুবিধা পাবেন।
৯. বন্ডেড লেবাররা এই যোজনা আওতায় বিভিন্ন প্রকার সুবিধা পেতে চলেছেন।

• শহরের ক্ষেত্রে যেসকল ব্যক্তিরা প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা সুবিধা পাবেন:-

ভিক্ষুক, গৃহকর্মী, ওয়াশারম্যান, চৌকিদার, সুইপার, স্যানিটেশন কর্মী, মালি, ইলেকট্রিশিয়ান, মেকানিক, অ্যাসেম্বলার, মেরামত কর্মী গৃহভিত্তিক কর্মী, কারিগর, হস্তশিল্প কর্মী, দর্জি, নির্মাণ শ্রমিক, প্লাম্বার, রাজমিস্ত্রি, চিত্রশিল্পী, ওয়েল্ডার, নিরাপত্তা প্রহরী, কুলি এবং অন্যান্য হেড লোড শ্রমিক, রাস্তায় বিক্রেতা, মুচি, ফেরিওয়ালা এবং এই জাতীয় অন্যান্য পেশার সাথে যুক্ত মানুষ, পরিবহন কর্মী, ড্রাইভার, কন্ডাক্টর, ড্রাইভার এবং গাড়ী চালক ও রিকশাচালক, দোকানের কর্মী, সহকারী, ছোট প্রতিষ্ঠানে পিওন, হেল্পার, ডেলিভারি সহকারী, পরিচারক, ওয়েটার ইত্যাদি পেশার সঙ্গে যুক্ত মানুষেরা প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা সুবিধা পেতে চলেছেন।

• প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার অধীনে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি:-
এই যোজনার অধীনে রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি সম্পূর্ণভাবে অনলাইনে সম্পন্ন করতে হবে।
১. এজন্য আপনাকে প্রথমেই প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনা অথবা আয়ুষ্মান ভারত যোজনার অফিশিয়াল ওয়েবসাইট https://mera.pmjay.gov.in/search/login এ যেতে হবে।
২. এরপর আপনাকে আপনার ফোন নম্বরটি সঠিকভাবে লিখতে হবে এবং ক্যাপচা করতে পূরণ করতে হবে। তারপর জেনারেট ওটিপি অপশনে ক্লিক করতে হবে।
৩. এরপর আপনি যে ফোন নম্বরটি প্রদান করেছেন তাতে একটি ওটিপি আসবে সেটি নির্দিষ্ট স্থানে সঠিকভাবে লিখতে হবে।
৪. এরপর আপনাকে সঠিকভাবে নির্বাচন করতে হবে আপনি কোন রাজ্য থেকে আয়ুষ্মান যোজনার জন্য আবেদন করছেন।
৫. এরপর আপনার সামনে যে পেজটি আসবে তাতে আপনার নাম, মোবাইল নম্বর, রেশন কার্ড নম্বর, আরএসবিওয়াই ইউআরএন নম্বর সঠিকভাবে লিখতে হবে।
৬. ওয়েবসাইটের তরফ এই সমস্ত তথ্যগুলি যাচাই করা হবে এবং যাচাইয়ের পর আপনি যদি এই যোজনায় আবেদনের যোগ্য হন তবে আপনার নামটি একেবারে ডানদিকে দেখতে পাবেন।
৭. এরপর আপনি পরিবারের সদস্য অপশনটি নির্বাচন করে দেখতে পারবেন আপনার পরিবারের সমস্ত সদস্য এই প্রকল্পের আওতায় আছে কিনা।
এইভাবে অনলাইনের মাধ্যমে আপনি আপনার নামটি প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার অধীনে রেজিস্টার করতে পারবেন।

আবেদন করুন লেবার কার্ডের জন্য এবং পেয়ে যান সর্বোচ্চ ১ লক্ষ টাকা

• কিভাবে আয়ুষ্মান ভারত যোজনা কার্ড সংগ্রহ করবেন:-
আপনি যদি প্রধানমন্ত্রী জন আরোগ্য যোজনার অধীনে রেজিস্টার করে থাকেন তবে আপনাকে অনলাইনে আয়ুষ্মান ভারত যোজনা কার্ডের জন্য আবেদন করতে হবে। বিনামূলে চিকিৎসার ক্ষেত্রে যেকোনো হাসপাতালে রোগীকে ভর্তি করার সময় এই কার্ডটি আপনার যেকোন আইডি প্রুফ অর্থাৎ আধার কার্ড, ভোটার কার্ড কিংবা প্যান কার্ড এর সাথে জমা করলে তবে আপনারা বিনামূল্যে চিকিৎসা পাবেন। এই কার্ডের জন্য আবেদনের পদ্ধতিটি হলো:-

১. আয়ুষ্মান ভারত যোজনা কার্ডের জন্য আবেদনের ক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমেই আয়ুষ্মান ভারত যোজনার অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে।
২. এরপর আপনাকে একটি বৈধ ইমেইল অ্যাড্রেস দিয়ে লগইন করতে হবে এবং আপনার পছন্দসই একটি পাসওয়ার্ড নির্বাচন করতে হবে।
৩. এরপর আপনার আধার নম্বরটি সঠিকভাবে প্রদান করতে হবে।
৪. এরপর আপনার সামনে যে অপশনগুলি আসবে তার মধ্যে অনুমোদিত সুবিধাভোগীর জন্য অপশনটি সিলেক্ট করুন।
৫. এরপর পেজটি রিডাইরেক্ট করে তাদের সহায়তা কেন্দ্রে পাঠানো হবে।
৬. এরপর নির্দিষ্ট স্থানে আপনাকে আপনার পাসওয়ার্ড এবং পিন প্রদান করতে হবে।
৭. এরপর হোম পেজে আপনি আপনার গোল্ডেন আয়ুষ্মান ভারত যোজনা কার্ডটি দেখতে পাবেন এবং ডাউনলোডের অপশন পাবেন। এই কার্ডটি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিলে প্রয়োজনের সময় আপনি এটি প্রদর্শন করতে পারবেন।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে