How-to-Apply-for-Swami-Vivekananda-Scholarship-in-Correct-Procedure

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের জন্য আবেদন ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। প্রতিবছরই রাজ্য সরকার কর্তৃক চালু করা এই জনপ্রিয় স্কলারশিপের জন্য লক্ষাধিক ছাত্রছাত্রী আবেদন করেন। কিন্তু অনেকসময়ই লক্ষ্য করা যায় যে, আবেদনগত কিছু ত্রুটির জন্য কিছু পড়ুয়ার এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন বাতিল করে দেওয়া হয়। তাই স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের জন্য ভালোভাবে আবেদন করা উচিত। আজকের এই প্রতিবেদনটি সেইজন্যই। কীভাবে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপে (Swami Vivekananda Scholarship) আবেদন করবেন তার সম্পূর্ণ বিবরণ নীচে দেওয়া হলো।

• কীভাবে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ ২০২২-২৩ -এর জন্য নতুন আবেদন করবেন?

(১) প্রথমে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট https://svmcm.wbhed.gov.in -এ যাবেন।
(২) এরপরে Registration -এ ক্লিক করে নীচের দিকে স্ক্রল করবেন এবং শেষে দেওয়া বাক্যটিতে টিক দিয়ে Proceed for Registration -এ ক্লিক করবেন।
(৩) এবার স্ক্রিনে একটি নোটিফিকেশন দেখাবে যার অর্থ হলো যে সকল ছাত্রছাত্রীরা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত তারা https://www.wbmdfcscholarship.org/ -এই ওয়েবসাইট থেকে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের জন্য নতুন আবেদন করবেন।
(৪) সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত হলে উপরোক্ত ওয়েবসাইট থেকে ফর্ম ফিল আপ করবেন এবং তা না হলে নোটিফিকেশনটির Close অপশনে ক্লিক করবেন।
(৫) তারপরে আপনি যে কোর্সের স্কলারশিপের জন্য আবেদন করছেন সেটির Apply for Fresh Application -এ ক্লিক করবেন।

(৬) প্রথমে Details of Last Qualifying Board/Council/University Examination for Scholarship -এ
পূর্ববর্তী পরীক্ষার নাম, বোর্ড /কাউন্সিল /বিশ্ববিদ্যালয়, নম্বর, পার্সেন্টেজ প্রভৃতি উল্লেখ করবেন।
(৭) তারপরে Present Course of Study লেখাটির নীচে বর্তমানে যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ছেন তার নাম,জেলা, সাব-ডিভিশন, ভর্তির তারিখ, কোর্সের নাম, কোর্সের মেয়াদকাল ইত্যাদি সমস্তরকম তথ্য ফিল আপ করে নেবেন।
(৮) এরপরে Basic Details -এ নিজের নাম, মোবাইল নম্বর, ইমেইল আইডি, লিঙ্গ, ধর্ম সবকিছু ভালো করে লিখবেন।
(৯) তারপরে একটি পাসওয়ার্ড তৈরী করে নিয়ে Register -এ ক্লিক করবেন। মনে রাখবেন, পাসওয়ার্ডটি আপনার স্কলারশিপের আবেদনের জন্য ফর্ম ফিল আপ এবং পরবর্তীতে স্ট্যাটাস চেক করার সময় কাজে লাগবে।
(১০) এবার আপনার দেওয়া মোবাইল নম্বরটিতে একটি OTP আসবে। সেটি লিখে Verify অপশনে ক্লিক করলে আপনার রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হয়ে যাবে এবং স্ক্রিনে আপনাকে নিজের Application ID দেখাবে। সেটি ভালো করে নোট করে নেবেন। এছাড়া Download Registration Slip -এ ক্লিক করে আপনার রেজিস্ট্রেশন স্লিপটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

সেপ্টেম্বর মাস থেকে এসকল মহিলারা লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে টাকা পাবেন না, রাজ্য সরকারের নতুন বিজ্ঞপ্তি

(১১) এরপরে Close অপশনে ক্লিক করবেন। এবার ওয়েবসাইটের উপরের দিকে Applicant Login -এ গিয়ে নিজের অ্যাপ্লিকেশন আইডি, পাসওয়ার্ড ও ক্যাপচা কোড দিয়ে Login -এ ক্লিক করবেন।
(১২) এবার বাঁদিকে Edit Application অপশনে ক্লিক করে নিজের পাসপোর্ট সাইজ ফটো ও স্বাক্ষর স্ক্যান করে আপলোড করে দেবেন এবং Save & Continue -এ ক্লিক করবেন।
(১৩) তারপরে Personal Details -এ আপনাকে নিজের বাবার নাম, মায়ের নাম, অভিভাবকের নাম, নিজের আধার নম্বর, কাস্ট প্রভৃতি সবকিছু ফিলআপ করতে হবে।
(১৪) নীচে Present Family Address -এ নিজের গ্রাম/শহরের নাম, পিন কোড, পোস্ট অফিস, জেলা, পরিবারের বার্ষিক ইনকাম ইত্যাদি সমস্ত তথ্যগুলো লিখবেন।
(১৫) এবার তার নীচে Bank Details -এ আপনার ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত তথ্যগুলো ফিল আপ করতে হবে। মনে রাখবেন, ব্যাঙ্ক সংক্রান্ত তথ্যগুলো নিখুঁতভাবে ফিলআপ করতে হবে নাহলে টাকা পেতে অনেক অসুবিধা হতে পারে। ব্যাংকের নাম, ব্রাঞ্চের নাম, আইএফএসসি কোড, অ্যাকাউন্ট নম্বর সবকিছু ভালোভাবে ফিল আপ করে নেবেন এবং Save & Continue -এ ক্লিক করবেন।

(১৬) এরপরে প্রয়োজনীয় নথিগুলো (Documents) আপলোড করতে হবে। এক এক করে আপনি নিজের মাধ্যমিক বা সমতুল্য পরীক্ষা মার্কশিট, শেষ পরীক্ষার মার্কশিট, ব্যাংকের পাসবুকের প্রথম পাতার ছবি, আধার কার্ড / ভোটার কার্ড / রেশন কার্ডের মধ্যে যেকোনো একটি, ইনকাম সার্টিফিকেট এইসব অনলাইনে আপলোড করে দেবেন।
(১৭) তারপরে নীচে থাকা I hereby declare that…. বাক্যটিতে টিক দিয়ে Save & Continue অপশনে ক্লিক করবেন।
(১৮) এবার আপনার ফিলআপ করা সব তথ্যগুলো পুনরায় স্ক্রিনে দেখাবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে Sumbit Application -এ ক্লিক করবেন।

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অধীনে কোন কোর্সে পাঠরত শিক্ষার্থীরা কতো টাকা পাবেন জেনে নিন

তাহলে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপে আবেদনের জন্য অনলাইন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। এরপরে Acknowledgement Slip -টি ডাউনলোড করে পরে প্রিন্টআউট করে নেবেন এবং তার সাথে কিছু নথি অ্যাটাচ করে তা আপনার বর্তমান শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমা দিবেন। তাদের তরফ থেকে ডকুমেন্টসগুলো ভেরিফাই করে দেওয়া হবে। আপনি চাইলে স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে লগ ইন করে Track Application -এর মাধ্যমে নিজের আবেদনের স্ট্যাটাস চেক করতে পারেন। সেখান থেকেই বুঝতে পারবেন যে, আপনার আবেদনটি ভেরিফাই করা হয়েছে কিনা। সবকিছু ভেরিফাই করা হয়ে গেলে কয়েকমাসের মধ্যেই আপনার দেওয়া ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে এই স্কলারশিপের টাকা ঢুকে যাবে।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে