If-you-have-account-in-all-these-banks-you-will-not-get-money-from-Lakshmir-Bhandar-scheme

আপনি কি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের একজন উপভোক্তা? তবে এই খবরটি আপনার জন্য। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে জনসাধারণের উন্নতির খাতিরে বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক প্রকল্প চালু করা হয়েছে। আর এগুলির মধ্যে অন্যতম উল্লেখযোগ্য প্রকল্প হলো লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প। পশ্চিমবঙ্গের গৃহবধূদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে তোলার উদ্দেশ্যে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের অধীনে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে গৃহবধূদের প্রতি মাসে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত প্রদান করা হয়ে থাকে।

General, তপশিলি জাতি ও উপজাতি এবং OBC সহ যেকোনো সম্প্রদায়ভুক্ত মহিলারা এই প্রকল্পের সুবিধা পেয়ে থাকেন। চলতি মাসের অর্থাৎ আগস্ট মাসের অনুদানের অপেক্ষায় রয়েছে সমগ্র রাজ্যের মহিলারা। আর এরই মধ্যে রাজ্য সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে যে, কতোগুলি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট থাকলে মহিলারা পাবেন না লক্ষ্মীর ভান্ডারের অনুদান। আর তা নিয়েই রীতিমত ভয়ে রয়েছে রাজ্যের মহিলারা। কোন কোন ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট থাকলে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের অধীনে টাকা পাবেন না মহিলারা তা নিয়ে বারবার প্রশ্ন উঠছে। আর তাই আজ আমরা আপনাদের জন্য এই সমস্যার সমাধান নিয়ে হাজির হয়েছে। আজ আমরা আলোচনা করতে চলেছি কোন কোন ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট থাকলে মহিলারা লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের অধীনে অনুদান পাবেন না, যদি এই ব্যাংকে আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তবে কি করবেন ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি (Lakshmir Bhandar scheme)।

কবে দেওয়া হবে পিএম কিষানের পরবর্তী কিস্তির টাকা, জেনে নিন

• চলুন তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক:-
বর্তমানে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া (RBI) এর নির্দেশে অনেকক্ষেত্রেই দুটি ব্যাংক মিলিত হয়ে একটি ব্যাংক হিসেবে পরিচিতি পায়। এর ফলে ওই ব্যাংকগুলিতে যেসকল গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট থাকে তাদের IFSC কোডটি পরিবর্তিত হয়ে যায়। অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায় মহিলারা যখন লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদন করেছিলেন তখন তাদের IFSC নম্বর এবং ব্যাংক অন্য নামে পরিচিত ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে দুটি ব্যাংক মিলিত হয়ে একটি ব্যাংক রূপে পরিচিতি পাওয়াতে তাদের IFSC কোড এবং ব্যাংকের নাম পরিবর্তিত হয়ে গেছে। যার জেরে তাদের পুরনো IFSC কোডটির কোন মূল্য থাকে না এবং এই IFSC কোডের মাধ্যমে NEFT, RTGS, IMPS এবং নেট ব্যাংকিং সহ অন্য কাজগুলি করা সম্ভব হয় না। বিভিন্ন রিপোর্ট অনুসারে জানা গেছে, যেসকল মহিলাদের একটি IFSC নম্বর লক্ষ্মীর ভান্ডারের প্রয়োজনীয় নথিপত্রের মধ্যে দেওয়া রয়েছে এবং পরে তা পরিবর্তিত হয়েছে, সেইসকল মহিলারা অনুদান পাবেন না।

• সমাধানের উপায়:-
যেসকল মহিলাদের ক্ষেত্রে ব্যাংকের নাম সহ IFSC কোড পরিবর্তিত হয়েছে তাদেরকে অবশ্যই তাদের নতুন ব্যাংকের তরফে পাওয়া পাসবইয়ের প্রথম পৃষ্ঠার জেরক্স এবং নতুন IFSC কোডটি নিজেদের বিডিও অফিসে জমা করতে হবে। একমাত্র এই পদ্ধতিতেই তারা পুনরায় সঠিকভাবে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাবেন।

রাজ্যের এই শহর গুলোতে পাওয়া যাচ্ছে সবচেয়ে সস্তা গ্যাস, আপনার শহরে কত

• যে সকল ব্যাংকগুলিতে অ্যাকাউন্ট থাকলে লক্ষ্মীর ভান্ডারের অনুদান পাবেন না মহিলারা:-
১. Andhra bank এবং Corporation bank এই দুটি ব্যাংক মিলিত হয়ে বর্তমানে Union Bank of India নামে একটি ব্যাংক হিসেবে পরিচিত। যেসকল মহিলাদের Andhra bank এবং Corporation bank এ অ্যাকাউন্ট ছিল তাদের অবশ্যই নিজের IFSC কোডটি B.D.O অফিসে জমা করতে হবে নয়তো চলতি মাস থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা তারা পাবেন না।

২. Oriental Bank of Commerce এবং United Bank of India একত্রিত হয়ে Punjab National Bank নামে পরিচিতি পেয়েছে। যেসকল মহিলাদের Oriental Bank of Commerce এবং United Bank of India এই ব্যাংক দু’টির যেকোনো একটিতে অ্যাকাউন্ট ছিল সেইসকল মহিলাদের নিজেদের পরিবর্তিত IFSC কোডটি অতি অবশ্যই আপডেট করতে হবে নয়তো তারা লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাবেন না।

৩. Allahabad Bank বর্তমানে Indian Bank নামে পরিচিত। এক্ষেত্রেও যেসকল মহিলাদের এই ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট ছিল তাদের অতি অবশ্যই নিজেদের IFSC কোড এবং ব্যাংকের পাসবইয়ের প্রথম পৃষ্ঠার জেরক্স জমা করতে হবে নয়তো তারা আগস্ট মাস থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাবেন না।

৪. Syndicate Bank পরিবর্তিত হয়ে Canara Bank নামে পরিচিত। যে সকল মহিলাদের এই ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট ছিল এবং বর্তমানে ব্যাংকের নামসহ IFSC কোডটি পরিবর্তিত হয়েছে সেই সকল মহিলাদের অবশ্যই তাদের IFSC কোডটি পরিবর্তন করতে হবে নচেৎ তারা টাকা পাবেন না।

শুরু করুন জলের ব্যবসা, মাসে ইনকাম লক্ষাধিক, কিকরে করবেন বিস্তারিত জেনে নিন

৫. Vijaya Bank এবং Dena Bank বর্তমানে পরিবর্তিত হয়ে Bank of Baroda নামে পরিচিতি। যে সকল মহিলাদের Vijaya Bank এবং Dena Bank এ অ্যাকাউন্ট ছিল তাদের অ্যাকাউন্ট নম্বর এবং IFSC কোড উভয়েই পরিবর্তন হয়েছে। ফলত এই দু’টি ব্যাংকে যেসব মহিলাদের অ্যাকাউন্ট ছিল তাদের অতি অবশ্যই তাদের নতুন অ্যাকাউন্ট নম্বর এবং IFSC কোডটি ব্যাংকের পাশ বইয়ের প্রথম পৃষ্ঠা জেরক্স সহকারে বিডিও অফিসে জমা দিতে হবে, নয়তো তারা লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা পাবেন না।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে