Money-of-these-ten-West-Bengal-Schemes-will-be-given-from-1st-September

২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় আসার পরেই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ মানুষকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহায়তার খাতিরে ভিন্ন ভিন্ন জনকল্যাণমূলক প্রকল্প চালু করা হয়েছিলো। কৃষক থেকে শুরু করে ছাত্র-ছাত্রী, গৃহবধূ সহ সর্বোপরি রাজ্যের সাধারণ মানুষ এই সকল প্রকল্পগুলির অধীনে বিভিন্ন প্রকার সুবিধা পেয়ে থাকেন। তবে বিভিন্ন প্রকল্পে বিভিন্ন কিস্তিতে টাকা দেওয়া হয়ে থাকে। কোনো কোনো প্রকল্পে নাগরিকদের প্রতি মাসে টাকা দেওয়া হয়ে থাকে, কোনো কোনো প্রকল্পে আবার নাগরিকদের বাৎসরিক অথবা বছরের দুটি কিস্তিতে টাকা প্রদান করা হয়ে থাকে। যার জেরে এই প্রকল্পগুলির আওতায় থাকা নাগরিকরা পরবর্তী কিস্তির টাকা কবে পাবেন তা জানার জন্য উন্মুখ হয়ে থাকেন। আর রাজ্যের সাধারণ মানুষের এই সমস্যার সমাধান নিয়ে আজ আমরা হাজির হয়েছি। আজ আমরা এই পোস্টে আলোচনা করতে চলেছি আগত মাসে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসে কোন কোন প্রকল্পে পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ মানুষেরা টাকা পেতে চলেছেন(West Bengal Schemes)।

ওয়েসিস স্কলারশিপের কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও তার উত্তর

• চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক আগত সেপ্টেম্বর মাসে আপনারা কোন কোন প্রকল্পের অধীনে অনুদান পেতে চলেছেন:-
১. লোক প্রসার:- মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কার্যকরী এই লোকো প্রসার প্রকল্পে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা লোকশিল্পীদের সাহায্যার্থে অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। পশ্চিমবঙ্গের তথ্য এবং সংস্কৃতি বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এই প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য হলো বাংলার লোকশিল্পের উন্নতিসাধন এবং দুঃস্থ শিল্পীদের সহায়তা করা। এই প্রকল্পের অধীনে ১৮ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৬০ বছর বয়সী শিল্পীদের অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। এই প্রকল্পের অধীনে বাংলার বিভিন্ন প্রান্তের লোকশিল্পীদের প্রতিমাসে সাম্মানিক স্বরূপ ১০০০ টাকা করে দেওয়া হয়। অর্থাৎ আগত সেপ্টেম্বর মাসেও এই প্রকল্পের অধীনে শিল্পীরা সাম্মানিক পেতে চলেছেন।

২. পুরোহিত ভাতা:- পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের দরিদ্র, অসহায় এবং বয়স্ক পুরোহিতদের সহায়তার জন্য পুরোহিত ভাতা কার্যকরী করা হয়েছে। এই প্রকল্পের অধীনে পশ্চিমবঙ্গে বসবাসকারী ৬০ বছরের বেশি বয়সপ্রাপ্ত পুরোহিতদের প্রতিমাসে ১০০০ টাকা করে অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। পরবর্তী মাসে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসেও এই প্রকল্পের অধীনে পুরোহিতরা অনুদান পেতে চলেছেন।

৩. ইমাম ভাতা:- পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন মসজিদে কর্মরত ইমামদের সাহায্য করার জন্য রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ইমাম ভাতা দেওয়া হয়। এই প্রকল্পের অধীনে থাকা নাগরিকরা প্রতি মাসে অনুদানস্বরূপ ১০০০ টাকা করে প্রদান করা হয়ে থাকে। আগত সেপ্টেম্বর মাসে এই প্রকল্পের অধীনে রাজ্যের বিভিন্ন মসজিদে কর্মরত ইমামরা অনুদান পেতে চলেছেন।

৪. চা শ্রমিকদের ভাতা:- পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের তরফে দুঃস্থ এবং দরিদ্র চা শ্রমিকদের সহায়তার খাতিরে এই ভাতা প্রদান করা হয়ে থাকে। এই ভাতার অধীনে চা শ্রমিকরা প্রতি মাসে ১০০০ টাকা করে অনুদান পেয়ে থাকেন। আগামী মাসে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসেও এই প্রকল্পের অধীনে চা শ্রমিকরা অনুদান পেতে চলেছেন।

৫. নির্মাণ কর্মী ভাতা:- পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে যেসকল বয়স্ক এবং কর্মক্ষেত্রে অক্ষম নির্মাণ কর্মী রয়েছেন তাদের সাহায্য করার জন্য রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই ভাতা কার্যকরী করা হয়েছে। এই ভাতার অধীনে ৬০ বছর বা তার বেশি বয়সপ্রাপ্ত নির্মাণকর্মীরা প্রতিমাসে ১০০০ টাকা করে অনুদান পেয়ে থাকেন। আগামী সেপ্টেম্বর মাসেও এই প্রকল্পের অধীনে নির্মাণ কর্মীরা অনুদান পাবেন।

পুজোর আগেই কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন উপহার, ৬১৯ টাকায় গ্যাস পাবেন সমস্ত ভারতবাসী

৬. পরিবহণ কর্মীদের ভাতা:- বিভিন্ন ক্ষেত্রে কর্মরত পরিবহণ কর্মীদের সহায়তা করার উদ্দেশ্যে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই ভাতা প্রদান করা হয়ে থাকে। তবে এক্ষেত্রে যেসকল পরিবহণ কর্মীদের পরিবহণ কর্মীর বই অথবা শ্রম দপ্তরের পক্ষ থেকে পরিবহণ কর্মীদের জন্য বিনামূল্যে যে SSY এর বই করা হয় তা রয়েছে তারাই একমাত্র এই প্রকল্পের অধীনে অনুদান পাবেন। এই সকল কর্মীদের বয়স ৬০ কিংবা তার বেশি হলে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে প্রতিমাসে ১০০০ টাকা করে অনুদান পাবেন। আগামী মাসেও এই প্রকল্পের অধীনে পরিবহণ কর্মীরা অনুদান পেতে চলেছেন।

৭. কৃষকবন্ধু প্রকল্প:- পশ্চিমবঙ্গের কৃষকদের চাষের কাজে সহায়তা করার জন্য এবং বীজ ধান, সার, কীটনাশক, রাসায়নিক ইত্যাদি পণ্য কেনার জন্য তাদের জমির পরিমাণ অনুসারে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কৃষকবন্ধু প্রকল্পের অধীনে অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। General, SC, ST, OBC যেকোনো শ্রেণীভুক্ত কৃষকরা এই প্রকল্পের অধীনে অনুদানের জন্য আবেদন করতে পারবেন। জমির পরিমাণ অনুসারে কৃষকবন্ধু প্রকল্পের অধীনে থাকা কৃষকদের ২০০০ থেকে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। ইতিমধ্যেই কৃষকবন্ধু প্রকল্পের আওতায় থাকা কৃষকদের টাকা দেওয়া শুরু হয়ে গেছে, যারা এখনও পাননি তারা আগামী সেপ্টেম্বর মাসে টাকা পেতে চলেছেন। তবে এক্ষেত্রে আপনাদের অ্যাকাউন্ট স্ট্যাটাস ভ্যালিড হতে হবে।

৮. জাগো প্রকল্প:- নারীদের ক্ষমতায়নের উদ্দেশ্যে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে রাজ্যের বিভিন্ন স্বনির্ভর গোষ্ঠীভুক্ত মহিলাদের সহায়তা করার জন্য জাগো প্রকল্প কার্যকরী করা হয়েছে। এই প্রকল্পের আওতায় থাকা স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সাথে যুক্ত মহিলাদের রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ৫০০০ টাকা করে অনুদান দেওয়া হয়ে থাকে। যদিও বর্তমানে কেবল মহিলারাই নয় পুরুষরাও স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সাথে যুক্ত হচ্ছেন, তাই যেসকল পুরুষরা এই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সাথে যুক্ত রয়েছে তারাও জাগো প্রকল্পের অধীনে টাকা পাবেন। আগত সেপ্টেম্বর মাসে এই প্রকল্পের অধীনে টাকা পেতে চলেছেন স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সাথে যুক্ত পুরুষ এবং মহিলারা।

৯. বার্ধক্য ভাতা:- পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের তরফে বয়সপ্রাপ্ত সমস্ত নাগরিকদের সুবিধার্থে যেসকল ভাতা কার্যকরী করা হয়েছে তার মধ্যে অন্যতম উল্লেখযোগ্য ভাতা হলো বার্ধক্য ভাতা। SC, ST, OBC, General যেকোনো শ্রেণীভুক্ত বয়স্ক নাগরিকরাই এই প্রকল্পের অধীনে প্রতিমাসে ১০০০ টাকা করে ভাতা পেয়ে থাকেন। পরবর্তী মাসে অর্থাৎ সেপ্টেম্বর মাসে এই প্রকল্পের অধীনে টাকা পেতে চলেছেন সমস্ত বয়স্ক নাগরিক।

১০. লক্ষ্মীর ভান্ডার:- পশ্চিমবঙ্গের গৃহলক্ষ্মীদের ক্ষমতায়ন এবং আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে তোলার উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প চালু করা হয়েছে। এই প্রকল্পের অধীনে SC, ST, OBC, General সমস্ত সম্প্রদায়ভুক্ত মহিলারাই অনুদান পেয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে General এবং OBC কাস্টের অন্তর্ভুক্ত গৃহবধূরা ৫০০ টাকা এবং SC, ST সম্প্রদায়ভুক্ত গৃহবধূরা ১০০০ টাকা করে পেয়ে থাকেন। আগামী সেপ্টেম্বর মাসেই সমস্ত গৃহবধূরা এই প্রকল্পের অধীনে অনুদান পেতে চলেছেন।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে