New-business-idea-start-up-income-25-thousand-per-month

আপনি কী ভালো কোনো ব্যবসা শুরু করতে চাইছেন? তাহলে এই খবরটি আপনার অনেক কাজে লাগবে। আজকে আপনাদের সাথে নার্সারি চালানোর ব্যবসা সম্পর্কে আলোচনা করবো, যা আপনি সহজেই নিজের বাড়ি বা তার আশেপাশের এলাকায় শুরু করতে পারবেন। এই ব্যবসার মাধ্যমে তুলনামূলক অনেক কম বিনিয়োগে ভালো লাভ করতে পারবেন। বর্তমানে অনেক ব্যবসার ক্ষেত্রেই সরঞ্জাম, মূলধন প্রভৃতির অসুবিধা লক্ষ্য করা যায়; কিন্তু নার্সারির ব্যবসা করার জন্য তেমন কোনো কষ্ট করার দরকার পড়বে না। কীভাবে নার্সারির ব্যবসা করবেন, নার্সারি খুলতে গেলে কী কী প্রয়োজন ইত্যাদি সমস্ত বিষয় নিয়ে নীচে আলোচনা করা হলো।(New Business Idea)

• নার্সারির ব্যবসা কী?
নার্সারির ব্যবসা হলো নির্দিষ্ট জায়গায় বিভিন্ন রকম ফুলের চারাগাছ প্রতিপালন করা এবং সেইসব গুরুত্বপূর্ণ চারাগাছগুলো বিক্রি করে মাসে ভালো ইনকাম করা।

° ফুলের নার্সারি:- নানারকম আকর্ষণীয় ফুলগাছ যেমন:- জবা, গোলাপ, গাঁদাফুল, টগর, রজনীগন্ধা, রক্তজবা, চন্দ্রমুখী ইত্যাদির চারাগাছ নিজের নার্সারিতে রেখে বিক্রি করা।
° ফলের নার্সারি:- বিভিন্ন ফলের গাছ, যেমন- আপেল, কাজু, ডালিম, বেলগাছ ইত্যাদি নিজের নার্সারিতে লাগানো
° ভেষজ ওষুধের নার্সারি:- দুর্লভ ভেষজ ঔষধি রূপে কাজ করা গাছগুলো যেমন- সর্পগন্ধা, বাসক, অ্যালোভেরা, তুলসী ইত্যাদি নানান গাছ নিজের নার্সারিতে দেখাশোনা করে তা গ্রাহকদের বিক্রি করতে পারেন।
° সবজির নার্সারি:- বিভিন্ন রকম শাকসবজির গাছ নিজের নার্সারিতে রেখে বিক্রি করা।

আপনি কেমন ধরনের নার্সারির ব্যবসা শুরু করবেন তা আপনার নিজের ইচ্ছের ওপর নির্ভর করবে।

পুজো উপলক্ষ্যে এয়ারটেল নিয়ে এলো নতুন অফার, মাত্র ১৫৫ টাকার রিচার্জে চলবে সারামাস, রোজ পাওয়া যাবে ১ জিবি করে ডেটা

• কেনো নার্সারির ব্যবসা শুরু করবেন?
আজকাল নার্সারির ব্যবসা যথেষ্ট লাভজনক বলে গণ্য হচ্ছে। প্রতি বছর ৫০ শতাংশ হারে এই ব্যবসা আরও প্রসারিত হচ্ছে। বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষই নিজেদের বাড়িঘর সাজাতে উদ্যোগী হন। আর সেইজন্য ফুলগাছের চাহিদা যথেষ্ট বাড়ছে। পাশাপাশি মানুষ স্বাস্থ্য সচেতন হওয়ায় অনেকে নিজের বাড়িতেই ফলমূল ও শাকসবজি উৎপাদন করতে চাইছেন। ফলে এরজন্য তারা নার্সারি থেকে বিভিন্ন গাছ কিনছেন। আবার অনেকে শৌখিনভাবে নানারকম দুর্লভ ও আকর্ষণীয় গাছ নিজের বাড়িতে রাখেন। বিভিন্ন রেস্টুরেন্ট, হোটেল সাজানোর জন্যও নানারকম ছোটোগাছ ব্যবহৃত হয়। ফলে স্বাভাবিকভাবেই নার্সারির ব্যবসা ভালো হারেই বাড়ছে। ২০২৫ সালের মধ্যেই নার্সারির ব্যবসা ৪ বিলিয়ন ডলারের দোরগোড়ায় পৌঁছোবে। সুতরাং বুঝতেই পারছেন নার্সারির ব্যবসার চাহিদা কতোটা!

• কীভাবে নার্সারির ব্যবসা শুরু করবেন?
নার্সারির ব্যবসা শুরু করার জন্য সবার প্রথমেই যেটি দরকার তা হলো একটি জায়গা। নার্সারি খোলার জন্য আপনার সামর্থ্যমতো ৩০০-৪০০ স্কোয়ার ফুট থেকে এক বিঘা অবধি জমির মধ্যে কোনো জায়গা চয়ন করবেন। চেষ্টা করবেন জনবহুল কিন্তু সুন্দর মনোরম পরিবেশবিশিষ্ট জায়গায় নিজের নার্সারি খোলার। তাহলে গাছগুলো সুস্থ-সবল ও সতেজ থাকবে। আপনি নার্সারিতে যেরকম গাছ রাখতে চান সেগুলোর বীজ বাজার থেকে সংগ্রহ করবেন এবং গাছ রাখার জন্য টব, ছোটো পাত্র ইত্যাদি সরঞ্জামের ব্যবস্থা করবেন। গাছগুলো লাগানোর পরে পুষ্টি ও লালনপালনের জন্য ভালো সারেরও ব্যবস্থা করবেন। চেষ্টা করবেন সবসময় জৈব সার ব্যবহার করার, এতে আপনার খরচও অনেকটাই কমে যাবে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে এইভাবে নিজের একটি নার্সারি খুলে নিবেন। একটি ভালো‌ মানের নার্সারি আপনি ৫০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার মধ্যে বানাতে পারবেন।

OLX এর সঙ্গে শুরু করুন ব্যবসা, প্রতিমাসে ইনকাম করতে পারবেন ২০ থেকে ৫০ হাজার টাকা

নার্সারি খোলার সঙ্গে সঙ্গেই যে আপনার ব্যবসা লাভের মুখ দেখবে এরকম নয়। এইধরণের দীর্ঘমেয়াদি ব্যবসা শুরু করলে সবসময় ধৈর্য্য ধরা উচিত । কয়েকমাসের মধ্যেই আপনার নার্সারির পরিচিতি ও ব্যবসা দুটিই ভালোভাবে বাড়বে এবং প্রতিমাসে সহজেই ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকার মতো ইনকাম করতে পারবেন। লাভের পরিমান বাড়তে থাকলে নার্সারির ব্যবসাটিকে আরও প্রসারিত করার চেষ্টা করবেন। চারাগাছের পাশাপাশি আপনি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গাছের সাপ্লাই দিতে পারেন, খুব চাহিদা থাকা গাছগুলোর বীজগুলোও নিজের নার্সারিতে বিক্রি করতে পারেন। সোশ্যাল মিডিয়াতেও নিজের নার্সারির বিজ্ঞাপন দিতে পারেন। এভাবে ভালোমতো নার্সারির ব্যবসা শুরু করলে মাস শেষে প্রচুর টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এইরকম আরও নানান নিত্যনতুন ব্যবসা-বাণিজ্য মূলক আইডিয়া পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে