notices-have-been-sent-to-many-farmers-to-return-the-money-of-the-krishak-bandhu-scheme

আপনি কী কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা পেয়ে থাকেন? তাহলে এই খবরটি আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে। কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, কৃষক বন্ধু প্রকল্পের মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের তরফে কৃষকদের প্রতি বছর ৪,০০০ থেকে ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সাহায্য করা হয়। টাকার পরিমান আপনার কতোটা জমি রয়েছে তার ওপর নির্ভর করে। এখনও অবধি কৃষক বন্ধু প্রকল্পে রাজ্যে নথিভুক্ত কৃষকের মোট সংখ্যা ৭৭ থেকে ৭৯ লক্ষের মধ্যে।

তবে এতো বিপুল পরিমান কৃষকের মধ্যে বহু মানুষই অসৎ উপায়ে এই প্রকল্পের টাকা নিয়ে যাচ্ছেন। অনেকে কৃষক বন্ধু প্রকল্পে আবেদনের যোগ্য না হয়েও এই প্রকল্পের আবেদন করে দিব্যি প্রতিটা কিস্তির টাকা পেয়ে যাচ্ছেন। তবে এ বিষয়ে রাজ্য সরকার কড়া পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চলেছে। যারা অন্যায়ভাবে টাকা পেয়ে যাচ্ছেন তাদের এবার সব টাকা ফেরত দিতে হবে। উল্লেখ্য, এর আগে পিএম কিষান যোজনায় টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিলো। এবার কৃষক বন্ধু প্রকল্পের ক্ষেত্রেও রাজ্য সরকার একই নির্দেশ দেওয়ায় তা যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠেছে (Krishak Bandhu Prakalpa)।

ফ্রী রেশন পেতে মানতে হবে এই শর্তগুলি, কেন্দ্র সরকার জারি করলো নতুন নিয়ম

সরকারের তরফে নিম্নলিখিত বিভিন্ন কারণের দরুণ কেউ কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা পেয়ে থাকলে তাদের শনাক্ত করার জন্য সরকারি আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছে। DDA (ডেপুটি ডিরেক্টর অফ অ্যাগ্রিকালচার) (Admn)-কে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এবিষয়ে সরকারের তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে। প্রতিটি ব্লকের DDA কে সেই ব্লকের অযোগ্য কৃষকদের তালিকা তৈরী করে সব টাকা ফেরত নেওয়ার কথা বিজ্ঞপ্তিটিতে বলা হয়েছে। সরকারের একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ডিটেইলসও নোটিশটিতে দেওয়া হয়েছে। ফেরত দেওয়া সব অর্থ ওই অ্যাকাউন্টে দিতে হবে বলে খবর। অ্যাসিস্ট্যান্ট DA দের সেইসব কৃষককের এবিষয়ে জানাতে বলা হয়েছে। কোন কোন কারণে কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা ফেরত নেওয়া হবে সেবিষয়েও নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে। যথা:-

১) মৃত্যুর পরেও টাকা পেয়ে গিয়ে থাকলে (Death):- এরকম অনেক কেস লক্ষ্য করা গিয়েছে যেখানে কৃষক বন্ধু প্রকল্পে নথিভুক্ত কৃষকের মৃত্যু হয়েছে, অথচ তা সত্ত্বেও তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এই প্রকল্পের প্রতি কিস্তির টাকা ঢুকে যাচ্ছে। তাদেরকেই এবার টাকা ফেরত দিতে হবে।

২) অযোগ্য উপভোক্তা হলে (Ineligible Beneficiary):- অনেক অসাধু মানুষ কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা পাওয়ার যোগ্য না হয়েও এই প্রকল্পের টাকা পেয়ে যাচ্ছেন। কোনো কারণে আগে তাদের শনাক্ত করা না গেলেও এবার তাদের টাকা ফেরত দিতে হবে।

৩) ভুল পেমেন্ট হলে (Wrong Payment):- অনেকসময়ে এতো বিপুল পরিমান কৃষকের অ্যাকাউন্ট ডিটেইলস থাকার ফলে কোনো টেকনিক্যাল কারণবশত ভুল মানুষের অ্যাকাউন্টে টাকা চলে গিয়েছে। কাদের অ্যাকাউন্টে এইভাবে কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা চলে গিয়েছে তা এবার খুঁজে দেখার জন্য DDA (Admn) কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্যান কার্ড সংক্রান্ত এই নিয়ম না মানলে দিতে হবে ১০,০০০ টাকা জরিমানা, জেনে নিন বিস্তারিত

৪) একাধিকবার পেমেন্ট (Duplicate payment) পেয়ে থাকলে:- যদি কোনো ভুলবশত কৃষক বন্ধু প্রকল্পের একই কিস্তির টাকা একাধিকবার কোনো কৃষকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকে থাকে তাহলে তা ফেরত দিতে হবে।

এই কারণগুলোর মধ্যে যদি কোনো কারণে আপনার অ্যাকাউন্টে কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা ঢুকে থাকে তাহলে এবার তা আপনাকে ফেরত দিতে হবে।

সরকারি প্রকল্প সম্পর্কিত এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের টেলিগ্রাম আইকনে ক্লিক করে আজই জয়েন হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে