7550-cities-got-house-from-Pradhan-Mantri-Awas-Yojana-Is-your-city-name-on-the-list

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে ভারতের সরকারের পক্ষ থেকে সমগ্র দেশের বিভিন্ন গ্রামে এবং শহরে বসবাসকারী দরিদ্র এবং কম উপার্জনশীল মানুষের নূন্যতম সুরক্ষিত বাসস্থানের চাহিদা পূরণের জন্য প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা (Pradhan Mantri Awas Yojana) কার্যকরী করা হয়েছে। এই যোজনার অধীনে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে যেসকল ভারতবাসীর পাকা বাড়ি নেই তাদের পাকাবাড়ি নির্মাণের উদ্দেশ্যে অনুদান দেওয়া হয়ে থাকে। ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ ভারতজুড়ে কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে ১ কোটি পাকা বাড়ি তৈরির অনুমোদন এবং অনুদান দেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে সমগ্র দেশের ২৮টি রাজ্য এবং ৭টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৭৫৫০ টি শহরকে নির্বাচন করা হয়েছে এবং পরবর্তীতে এই শহরগুলিতে বসবাসকারী গৃহহীন মানুষদের পাকা বাড়ি নির্মাণের জন্য টাকা দেওয়া হবে। বিভিন্ন সমীক্ষা অনুসারে জানা গিয়েছে যে, এই যোজনার অধীনে ২০২২ সালে ২ কোটি বাড়ি তৈরির লক্ষ্যমাত্রা স্থির করে কেন্দ্র সরকার। আর আজ আমরা সকলের সাহায্যার্থে আলোচনা করতে চলেছি পশ্চিমবঙ্গের কোন কোন শহরের নাম রয়েছে এই লিস্টে, কোন রাজ্যের অধীনে কটি শহর নির্বাচন করা হয়েছে এ বিষয়ক সমস্ত তথ্য। আপনিও যদি এই যোজনায় আবেদনের ক্ষেত্রে ইচ্ছুক হয়ে থাকেন তবে অবশ্যই দেখে নিন আপনার শহরের নাম এই তালিকায় রয়েছে কিনা।

• চলুন তবে দেখে নেওয়া যাক প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় কোন কোন রাজ্যের অধীনে কটি করে শহর নির্বাচন করা হয়েছে:-
১. সমগ্র ভারতের বিভিন্ন রাজ্যগুলির মধ্যে তামিলনাড়ুতে পাকাবাড়ি নির্মাণের অনুদান প্রদানের খাতিরে সর্বোচ্চ সংখ্যক শহর নির্বাচন করা হয়েছে। তামিলনাড়ুর ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে শহরের সংখ্যা বর্তমানে ১০৭৩ টি।
২. অন্যদিকে চণ্ডীগড় এবং আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ উভয়ের নামই রয়েছে এই লিস্টের সবচেয়ে নীচে। চণ্ডীগড় এবং আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ উভয়ের ক্ষেত্রেই এই যোজনার অধীনে নির্বাচিত শহরের সংখ্যা ১ টি।
৩. অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় থাকা শহরের সংখ্যা ৯০৫ টি।
৪. অরুণাচল প্রদেশের ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে ৩১ টি শহর রয়েছে।
৫. আসামের রাজ্যস্থিত ১০০ টি শহর এই যোজনার অধীনে রয়েছে।

খাদ্য দপ্তর চালু করলো নতুন অ্যাপ, এখন রেশন কার্ডের যাবতীয় কাজ হবে একটি অ্যাপেই

৬. বিহারের ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে থাকা শহরের সংখ্যা ১৪৮ টি।
৭. ছত্তিশগড়ের ১৬৫ টি শহর প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে রয়েছে।
৮. UT of DHN এবং DD এর ক্ষেত্রে নির্বাচিত শহরের সংখ্যা মাত্র ৩ টি।
৯. রাজধানী দিল্লির ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় নির্বাচিত শহরের সংখ্যা মাত্র ৫ টি।
১০. যদিও গুজরাটের ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে নির্বাচিত শহরের সংখ্যা যথেষ্ট বেশি। গুজরাটের ক্ষেত্রে এইরূপ শহরের সংখ্যা ৫৭২ টি।
১১. গোয়ার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে ১৪ টি শহরকে নির্বাচন করা হয়েছে।
১২. হরিয়ানা রাজ্যে এই যোজনার আওতায় ১১৯ টি শহর রয়েছে।

১৩. হিমাচল প্রদেশের ক্ষেত্রে এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছে ১০৮ টি শহরের নাগরিক।
১৪. জম্মু এবং কাশ্মীরের ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে নির্বাচিত শহরের সংখ্যা যথেষ্ট বেশি হলেও লাদাখের ক্ষেত্রে এইরূপ শহরের সংখ্যা যথেষ্ট কম। জম্মু এবং কাশ্মীরের ক্ষেত্রে এইরূপ শহরের সংখ্যা ১০৯ টি এবং লাদাখের ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে নির্বাচিত শহরের সংখ্যা মাত্র ২ টি।
১৫. ঝাড়খণ্ড রাজ্যে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় ৬১ টি রাজ্যকে নির্বাচন করা হয়েছে।
১৬. কর্ণাটক রাজ্যের ক্ষেত্রে এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছে ২৮১ টি শহরের নাগরিক।
১৭. কেরালার ক্ষেত্রে এইরূপ শহরের সংখ্যা ১২৪ টি।
১৮. মধ্য প্রদেশের ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে ৪২৭ টি শহরকে নির্বাচন করা হয়েছে।

১৯. মহারাষ্ট্রের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় নির্বাচিত শহরের সংখ্যা ৮৩৩ টি।
২০. মণিপুরের ক্ষেত্রে ২৭ টি শহরের নাগরিকরা এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছেন।
২১. অন্যান্য রাজ্যগুলির তুলনায় মিজোরাম, মেঘালয়, নাগাল্যান্ড এই তিনটি রাজ্যে নির্বাচিত শহরের সংখ্যা যথেষ্ট কম। মিজোরাম, মেঘালয় এবং নাগাল্যান্ড এই তিনটি রাজ্যে নির্বাচিত শহরের সংখ্যা যথাক্রমে ২৩ টি, ১০ টি এবং ৩২ টি।
২২. ওড়িশা রাজ্যের ক্ষেত্রে ১২০ টি রাজ্যের নাগরিক এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছেন।
২৩. পুদুচেরির ক্ষেত্রে এই যোজনার অধীনে এইরূপ ৪০ টি রাজ্যকে নির্বাচন করা হয়েছে।
২৪. পাঞ্জাবের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় ১৬৯ টি শহরের নাগরিকরা এই যোজনার সুবিধা পাবেন।

২৫. রাজস্থান রাজ্যের ক্ষেত্রে ৬৬৯ রাজ্যকে নির্বাচন করা হয়েছে এই যোজনার অধীনে।
২৬. সিকিমের ক্ষেত্রে মাত্র ৮ টি রাজ্যকে নির্বাচন করা হয়েছে।
২৭. তেলেঙ্গানা রাজ্যের ১২৫ টি রাজ্যকে এই যোজনার অধীনে নির্বাচন করা হয়েছে।
২৮. ত্রিপুরার ক্ষেত্রে ২০ টি শহরের নাগরিক এই যোজনার সুবিধা পেতে চলেছেন।
২৯. উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের ৮৯৬ শহরকে এই যোজনার নির্বাচিত করা হয়েছে।
৩০. উত্তরাখণ্ডের ১০১ টি শহরের নাগরিক এই যোজনার সুবিধা পাবেন।
৩১. পশ্চিমবঙ্গের ২২৮ টি শহরকে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে নির্বাচন করা হয়েছে।

মাত্র ৯ টাকায় মিলবে আনলিমিটেড কল এবং ইন্টারনেট, এয়ারটেলের নতুন অফার

• প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার আওতায় পশ্চিমবঙ্গের যে শহরগুলিকে নির্বাচন করা হয়েছে সেগুলির নাম:-
পশ্চিমবঙ্গের আওতায় থাকা যে শহরগুলিকে নির্বাচন করা হয়েছে সেগুলি হলো:- দালসিংপাড়া টি গার্ডেন, তোর্সা ফরেস্ট, দক্ষিণ আলোকঝাড়ি, বরানগর, বুনিয়াদপুর, ডোমকল, আটলা, নিশ্চিন্তপুর, বাতাইল, বৈকুণ্ঠপুর, নবগ্রাম, সাহাপুর, বোলপুর, শিবপুর, রাইপুর, চন্দনপুর, দুর্গাপুর, বারাবনি, তালিত, নূতনগ্রাম, নবাভাত, কাঞ্চননগর, সরাইটিকার, রায়ন, গোডা, বাহির সর্বমঙ্গলা, নারী (P) (CT), ইচলাবাদ, কানাইনাটসাল, আলিশা, গোপালনগর, শ্রীরামপুর, কন্দরসোনা, হরিণঘাটা, জয়নপুর, নওপাড়া, মহেশপুর, গোপালপুর, মহিষবাথান, তরুলিয়া, চকপাচুরিয়া, পাথরঘাটা, আকন্দকেশরী, রেকজুয়ানি (CT), যাত্রাগাছি (CT), ঘুনি (CT), সন্তোষপুর, নায়পাড়া, তারেকেশ্বর, কৃষ্ণনগর, শ্রীরামপুর, জঙ্গীপাড়া, কৃষ্ণপুর, নীলগিরি, কড়াইদাঙা, জট ভীম, ঘুনিমেঘি, পৈকান, সুক পুকুরিয়া, বেঘুয়াখালি, সাগর, শিবপুর, বিশালাক্ষ্মীপুর, গদাইপিয়াশাল, চৈতা, খাসজঙ্গল, কঙ্কাবতী, ফুলপাহাড়ি, দক্ষিণ আমছাতাগোলাপী চক, মদরপুর, কঙ্গলগঞ্জ পাটনা, বড়ুয়া, যমকুন্ডা, নরেন্দ্রপুর, কন্টাই, এগরা, হলদিয়া, তমলুক, পাঁশকুড়া, খড়গপুর, ঝাড়গ্রাম, মেদিনীপুর, ঘাটাল, খারার, চন্দ্রকোনা, ক্ষীরপাই, রামজীবনপুর, জয়নগর মজিলপুর, বারুইপুর, ডায়মন্ড হারবার, রাজপুর সোনারপুর, পুজালি, বজবজ, মহেশতলা, কলকাতা, উলুবেড়িয়া, হাওড়া, বালি, পুরুলিয়া, রঘুনাথপুর, ঝালদা, বিষ্ণুপুর, সোনামুখী, বাঁকুড়া, উত্তরপাড়া কোতরং, ডানকুনি, কোন্নগর, রিষড়া, শ্রীরামপুর, বৈদ্যবাটি, চাঁপদানি, ভদ্রেশ্বর, আরামবাগ, তারকেশ্বর, চন্দননগর, হুগলী-চুঁচুড়া, বাঁশবেড়িয়া, টাকি, বসিরহাট, নবদিগন্ত ইন্ডাস্ট্রিয়াল টাউনশিপ, রাজারহাট গোপালপুর, বিধাননগর, সাউথ দমদম, দমদম, বরানগর, কামারহাটি, নর্থ দমদম, নিউ ব্যারাকপুর, মধ্যমগ্রাম, বারাসাত, বাদুড়িয়া, পানিহাটি, খড়দা, টিটাগড়, ব্যারাকপুর, ব্যারাকপুর ক্যান্টনমেন্ট, নর্থ ব্যারাকপুর, গাড়ুলিয়া, অশোকনগর কল্যাণগড়, হাবরা, গোবরডাঙ্গা, নৈহাটি, কাঁচরাপাড়া, ভাটপাড়া, হালিশহর, গয়েশপুর, বনগাঁ, কল্যাণী, চাকদহ, কুপার্স ক্যাম্প, রানাঘাট, বীরনগর, তাহেরপুর, শান্তিপুর, কৃষ্ণনগর, কালনা, নবদ্বীপ, মেমারি, বর্ধমান, গুসকরা, দিনহাট, কাটোয়া, দুর্গাপুর, রানিগঞ্জ, জামুরিয়া, আসানসোল, কুলটি, দুবরাজপুর, সাঁইথিয়া, সিউড়ি, বোলপুর, বহরমপুর, রামপুরহাট, বেলডাঙা, কান্দি, নলহাটি, মুর্শিদাবাদ, জিয়াগঞ্জ আজিমগঞ্জ, জঙ্গিপুর, ধুলিয়ান, ইংলিশ বাজার, কালিগঞ্জ, গঙ্গারামপুর, ওল্ড মালদা, বালুরঘাট, কালিগঞ্জ, দহখোলা, ইসলামপুর, দিনহাটা, মাথাভাঙ্গা, তুফানগঞ্জ, কোচবিহার, মেখলিগঞ্জ, ধুপগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, হলদিবাড়ি, জলপাইগুড়ি, মাল, শিলিগুড়ি, কার্শিয়াং, মিরিক, কালিম্পং, দার্জিলিং, কাশিপুর, পূর্ব বিরামপুর, মালদহ, পাটনা, নাটশালের চার, লক্ষ্য, বাসুদেবপুর, কেশবপুর, কল্যাণপুর, কিসমত নাইকুন্ডি, হরিহরপুর, বারমুনীগড়, বেলাগেড়ে, কৃষ্ণনগর, রূপনারায়নপুর, দহধিমনা, কিসমতেগুয়া, শালবনী, পাঁচমহলী, আগরপাড়া, কুমারপুর, মাগুরগের ছোটা।

আপনিও যদি পশ্চিমবঙ্গের এই শহরগুলির যেকোনো একটিতে বসবাস করে থাকেন এবং আপনার পাকা বাড়ি না থেকে থাকে তবে আপনিও প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে পাকা বাড়ি নির্মাণের অনুদানের জন্য আবেদন করতে পারেন।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে