Do-you-want-to-apply-for-Oasis-and-Swami-Vivekananda-Scholarships-simultaneously-Beware-now

পশ্চিমবঙ্গের পিছিয়ে পড়া ক্ষেত্রের জনজাতি এবং দরিদ্র ছাত্রছাত্রীদের উচ্চশিক্ষা লাভ এবং স্বনির্ভর হওয়ার ক্ষেত্রে অন্যতম উল্লেখযোগ্য দুটি স্কলারশিপ হলো ওয়েসিস স্কলারশিপ এবং স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ। তবে অনেক ছাত্র-ছাত্রীই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য অনুদান পাওয়ার ক্ষেত্রে এই দুটি স্কলারশিপেই আবেদন করে থাকে। অনেক ক্ষেত্রে এটাও দেখা গেছে যে, তারা এই দুটি স্কলারশিপ থেকেই অনুদান পেয়ে থাকেন। বিগত বছরগুলিতে এমন অনেক ছাত্র-ছাত্রীর নজির পাওয়া গেছে। কিছু সংখ্যক ছাত্রছাত্রী রয়েছে যারা এ বছরেও একই সাথে দুটি স্কলারশিপে আবেদন করতে চলেছেন। কিন্তু অনেক ছাত্র-ছাত্রীই এখনও পর্যন্ত জানেন না একইসাথে এই দুটি স্কলারশিপে আবেদন করলে যথেষ্ট সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে তাদের। আর তাই আজ আমরা এই পোস্টে ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার খাতিরে আলোচনা করতে চলেছি একই সাথে দুটি গভর্নমেন্ট স্কলারশিপে আবেদন করা কি ঠিক হবে, দুটি স্কলারশিপে আবেদন করলে কি কি সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে শিক্ষার্থীদের ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি।

• একই সাথে দুটি গভর্নমেন্ট স্কলারশিপে আবেদন করলে ঠিক কি সমস্যা সম্মুখীন হতে হবে ছাত্র-ছাত্রীদের:-
কিছুদিন পূর্বেই পশ্চিমবঙ্গের ছাত্রছাত্রীদের মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। আর তার ঠিক পরেই ওয়েসিস স্কলারশিপ এবং স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ এই দুটি স্কলারশিপেরই আবেদন প্রক্রিয়াও শুরু হয়ে গেছে। কিন্তু এমন অনেক ছাত্রছাত্রী রয়েছেন যারা নিজেদের যোগ্যতার মাপকাঠিতে এই দুটি স্কলারশিপেই আবেদনের যোগ্য। আর তাই অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রীই এই দুটি স্কলারশিপের অনুদানের জন্য আবেদন করে থাকেন। কিন্তু সমস্যা অন্যক্ষেত্রে। ইতিপূর্বে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছিলো যে, ছাত্র-ছাত্রীদের একের অধিক স্কলারশিপের অনুদানের জন্য আবেদন করা থেকে বিরত রাখতে এমন একটি সফটওয়্যার সিস্টেম কার্যকরী করা হবে যেটির মাধ্যমে খুব সহজেই জেনে নেওয়া যাবে একজন ছাত্র কিংবা ছাত্রী ঠিক কতোগুলি স্কলারশিপের অনুদানের জন্য আবেদন করেছেন। যদিও এখনও পর্যন্ত এমন কোন পোর্টাল কিংবা সফটওয়্যার সিস্টেম কার্যকরী করা হয়নি কিন্তু এ বিষয়ে রীতিমতো তৎপর হয়েছে রাজ্য সরকার।

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের চারটি গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্ন ও তার উত্তর

তাই যেসকল ছাত্র-ছাত্রী ইতিপূর্বে ওয়েসিস এবং স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপ অর্থাৎ উভয় স্কলারশিপেরই অনুদান পেয়েছেন সেই সকল ছাত্র-ছাত্রীদের যেকোনো একটি স্কলারশিপের অনুদান ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ছাত্র-ছাত্রীদের সরাসরি এই নির্দেশ না দেওয়া হলেও কলেজের মারফত ছাত্র-ছাত্রীদের জানানো হয়েছে যাতে তারা যেকোনো একটি স্কলারশিপের অনুদান যতো শীঘ্র সম্ভব ফেরত দিয়ে দেন। অর্থাৎ আপনারা যদি একের অধিক স্কলারশিপের অনুদান পেয়ে থাকেন তাহলে আপনাদেরও রাজ্য সরকারকে সেই অনুদান ফিরিয়ে দিতে হতে পারে। এছাড়াও বিদ্যালয়, কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষকে স্কলারশিপের আবেদনপত্রগুলিকে যথেষ্ট ভালোভাবে ভেরিফাই করে তবে অ্যাপ্রুভ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই ওয়েসিস স্কলারশিপের পোর্টালে স্কলারশিপের জন্য আবেদনের ক্ষেত্রে নতুন দশটি নিয়ম জারি করা হয়েছে। তাতেও যথেষ্ট স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে শিক্ষক এবং ইন্সপেক্টররা যাতে আবেদনপত্রগুলি যথেষ্ট ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করে তবেই অ্যাপ্রুভাল দেন, কোনরূপ ভুল আবেদন পত্র কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

• একের অধিক স্কলারশিপের জন্য আবেদনের ক্ষেত্রে কি করনীয়:-
একের অধিক স্কলারশিপের জন্য আবেদনের ক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই সেই স্কলারশিপগুলিতে কতো টাকা করে অনুদান পাওয়া যাবে তা খেয়াল করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনারা প্রথমে একটি স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারেন এবং কলেজ কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে, তাদের পারমিশন নিয়ে তবেই অন্য একটি স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারেন।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে