Find-out-the-changes-about-the-rules-of-the-higher-secondary-examination

সামনেই পুজো। আর তাই সমগ্র বাংলা জুড়ে বর্তমানে ছুটি ছুটি রব। সরকারি-বেসরকারি কর্মী থেকে শুরু করে শিক্ষকদের পাশাপাশি ছাত্র-ছাত্রীরাও পুজোর ছুটির অপেক্ষায় রয়েছে। যদিও ইতিমধ্যে মুখ্যমন্ত্রীর পক্ষ থেকে পুজোর ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। আর তাই প্রত্যেকে এখন সেই পুজোর ছুটির অপেক্ষায় রয়েছে। কিন্তু এরই মধ্যে শিক্ষক-শিক্ষিকা থেকে শুরু করে ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবকদের জন্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বার্তা প্রকাশ করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের পক্ষ থেকে।

বিগত দুই বছরে করোনা মহোয়ারীর একের পর এক ঢেউয়ের জেরে যথেষ্ট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনা, এর পাশাপাশি পরীক্ষা পদ্ধতিতে আনা হয়েছিল বদল। কিন্ত ইতিপূর্বেই পশ্চিমবঙ্গের ছাত্রছাত্রীদের মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশের সময়ে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিলো আগামী বছর অর্থাৎ ২০২৩ সালের সম্পূর্ণ স্বাভাবিক নিয়মেই মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে হবে ছাত্র-ছাত্রীদের। আর এবারে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার প্রায় ৭ মাস পূর্বে রাজ্যের সমস্ত ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, ২০২৩ সালে যে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হবে তার নিয়মে বেশ কিছু বদল আনা হয়েছে। আর তাই আজ আমরা এই পোস্টে শিক্ষার্থীদের সুবিধার খাতিরে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার নিয়মে কি কি বদল আনা হবে তা নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি। 

• চলতি বছরের অর্থাৎ ২০২২ সালের জুলাই মাসেই উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তি মারফত জানানো হয়েছিলো, ২০২৩ সালে মার্চ মাসে হতে চলেছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। আর এবারে আরও এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হয়েছে যে, সমস্ত ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা, পরীক্ষক থেকে শুরু করে প্রধান পরীক্ষক এবং ইনভিজিলেটরদের মতামত এবং পরামর্শকে মাথায় রেখে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের পক্ষ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা কেন্দ্রিক দুটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সংসদের পক্ষ থেকে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুসারে এই সিদ্ধান্তগুলি হলো:-

সেপ্টেম্বর মাসে মোট ১০ টি প্রকল্পের টাকা পেতে চলেছেন রাজ্যবাসী, কোন কোন প্রকল্প জেনে নিন

১. ইতিপূর্বে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্র হিসেবে PART A এবং PART B (Question cum answer booklet) এই দুটি অংশ দেওয়া হতো। এর মধ্যে PART B অংশে উত্তর লিখে ছাত্রছাত্রীদের উত্তরপত্রের সাথে যুক্ত করে পরীক্ষা শেষে জমা দিতে হতো। কিন্তু বর্তমানে এই পদ্ধতি আর থাকছে না। অর্থাৎ PART A এবং PART B এর বদলে ছাত্রছাত্রীরা কেবলমাত্র একটিই প্রশ্নপত্র পাবেন, যার জেরে পরীক্ষা শেষে ছাত্র-ছাত্রীদের PART B অংশটিকে PART A এর উত্তরপত্রের সাথে যুক্ত করার ক্ষেত্রে কোনো সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না। 

২. এর পাশাপাশি উত্তরপত্রের ক্ষেত্রেও একাদশ শ্রেণির পরীক্ষার মতোই উচ্চমাধ্যমিকের ক্ষেত্রেও ছাত্র ছাত্রছাত্রীদের কেবলমাত্র একটি উত্তরপত্র প্রদান করা হবে। এই উত্তরপত্রেই ছাত্রছাত্রীদের সমস্ত প্রশ্নের উত্তর লিখতে হবে। প্রশ্নপত্রে কোনরকম উত্তর লেখা যাবে না।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে