Government-employees-and-College-students-will-get-Government-Leave-of-three-consecutive-months

পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য রয়েছে দারুণ সুখবর। একদিন কিংবা একমাস নয় রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা এই বিশেষ কারণের দরুণ পেতে পারেন সম্পূর্ণ তিন মাস এমনকি ২৪০ দিনের ছুটি। তবে এই ছুটির নিয়মটি রয়েছে শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের মহিলা রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য। পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের উদ্যোগে রাজ্য সরকারের অধীনস্থ কর্মীদের সুবিধার খাতিরে বিভিন্ন প্রকারের নিয়ম চালু করা হয়ে থাকে। আর এরূপ একটি নিয়ম হলো মহিলা রাজ্য সরকারি কর্মীদের মাতৃত্বকালীন ছুটির নিয়ম। রাজ্যের অধীনস্থ মহিলা কর্মীরা যাতে তাদের আগত সন্তান অথবা সন্তানদের পরিচর্যা ভালোভাবে করতে পারে তার জন্যই রাজ্য সরকারের তরফে এই মাতৃত্বকালীন ছুটি প্রদান করা হয়ে থাকে (Government Leave)।

এটি একটি অগ্রাধিকার ভিত্তিক ছুটি। তবে এবারে এই মাতৃত্বকালীন ছুটির নিয়মে বেশ কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে। আর এখনও পর্যন্ত অনেকেই জানেনা এই পরিবর্তনগুলো ঠিক কি কি। যার জেরে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে বিভিন্ন প্রকার গুঞ্জন শুরু হয়েছে। আর তাই আজ আমরা সকলের সাহায্যার্থে এই পোস্টে আলোচনা করতে চলেছি মাতৃত্বকালীন ছুটি ঘিরে এই নতুন নিয়ম সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য।

• চলুন তবে মাতৃত্বকালীন ছুটি সম্পর্কিত এই নতুন নিয়মটি জেনে নেওয়া যাক:-
গর্ভাবস্থার শেষ কয়েক সপ্তাহ থেকেই গর্ভবতী মহিলারা মাতৃত্বকালীন ছুটি নিতে পারেন। রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের ক্ষেত্রে মাতৃত্বকালীন ছুটি হিসেবে ১৮০ দিন কিংবা ৩ মাসের ছুটি প্রদান করা হয়ে থাকে। গর্ভাবস্থায় অ্যাবরশন বা মিস ক্যারেজ হলে ৬ সপ্তাহের ছুটি পাওয়া যায়। এতোদিন পর্যন্ত কেবল রাজ্য সরকারের আওতায় থাকা কর্মীরা এবং বিশেষ কিছু কোর্সে পাঠরত ছাত্রীরা এই সুবিধা পেলেও এবারে UGC (University Grant Commission) এর তরফে জারি করা নিয়ম অনুসারে মাতৃত্বকালীন ছুটি পেতে চলেছেন স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে পাঠরত ছাত্রীরা। বিগত বছরগুলিতে কেবলমাত্র এমফিল এবং পিএইচডি কোর্সগুলিতে পাঠরত ছাত্রীরা এই মাতৃত্বকালীন ছুটির সুবিধা পেলেও এবার থেকে এই সুবিধা স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে পাঠরত ছাত্রীরা পাবেন।

২২৫ টাকার রিচার্জ করে লাইফ টাইম অফার পান, জেনে নিন কোন সিম দিচ্ছে এই অফার

এতোদিন পর্যন্ত কেবলমাত্র এমফিল এবং পিএইচডি কোর্সগুলিতে পাঠরত ছাত্রীরা গর্ভাবস্থায় এবং সন্তান জন্মের পর তাদের নিজের এবং সন্তানের খেয়াল রাখা ও সদ্যজাত সন্তান লালন পালনের জন্য ২৪০ দিনের ছুটি পেতেন। এবার থেকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর স্তরে পাঠরত ছাত্রীরা ওই একই মেয়াদের ছুটি পাবেন গর্ভাবস্থার ক্ষেত্রে। এর পাশাপাশি UGC এর তরফে জারি করা নির্দেশিকায় আরও জানানো হয়েছে, গর্ভবতী ছাত্রীদের যেনো উপস্থিতির ক্ষেত্রেও কিছুটা ছাড় দেওয়া হয়, এছাড়াও পরীক্ষা এবং অন্যান্য ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ফর্ম জমা দেওয়ার জন্যও যেনো অধিক সময়সীমা দেওয়া হয়।

গর্ভাবস্থায় সমস্ত দিক সামাল দিয়ে না উঠতে পারার কারণে অনেক ছাত্রীই পড়াশোনা ছেড়ে দেন এমনকি অনেক মহিলা কর্মীকেও ছাড়তে হয় তাদের কর্মক্ষেত্র। এসব ক্ষেত্রে যাতে তারা ভোগান্তির শিকার না হন তাই এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে।

এইরকম আরও নানান গুরুত্বপূর্ণ আপডেট পেতে আমাদের পেজটি ফলো করুন এবং নীচের ডানদিকের আইকনে ক্লিক করে আজই যুক্ত হোন আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলে